ঢাকা ০৮:৪১ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ১৪ জুলাই ২০২৪

বাংলাদেশসহ ১৫ দেশ থেকে কর্মী নেয়া স্থগিত করল মালয়েশিয়া

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০১:২০:৩৬ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৮ মার্চ ২০২৩ ১৮৫ বার পড়া হয়েছে
নিউজ ফর জাস্টিস অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

ডেস্ক রিপোর্ট

পরবর্তী নির্দেশ না দেয়া পর্যন্ত বাংলাদেশসহ ১৫টি দেশ থেকে নতুন করে বিদেশি কর্মী নেওয়ার কোটা অনুমোদনের আবেদন স্থগিত করেছে দেশটির মানবসম্পদ মন্ত্রণালয়। শনিবার (১৮ মার্চ) এক বিবৃতিতে এ তথ্য জানানো হয়।

মালয়েশিয়ার মানবসম্পদমন্ত্রী ভি শিবকুমার জানান, ফরেন ওয়ার্কার এমপ্লয়মেন্ট রিল্যাক্সেশন প্ল্যানে (পিকেপিপিএ) বিদেশি কর্মীদের জন্য কোটার আবেদন ও অনুমোদন ১৮ মার্চ থেকে পরবর্তী তারিখ ঘোষণা না দেওয়া পর্যন্ত স্থগিত করা হলো।

গত ১৪ই মার্চ পর্যন্ত বিভিন্ন সেক্টর থেকে বিদেশি কর্মীদের জন্য মোট ৯ লাখ ৯৫ হাজার ৩৯৬টি কর্মসংস্থান কোটা মন্ত্রণালয় অনুমোদন করার পরে এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

২০১৮ সালের পহেলা সেপ্টেম্বর থেকে বন্ধ ছিল বাংলাদেশ থেকে মালয়েশিয়ায় কর্মী নিয়োগ। দীর্ঘ দেনদরবার ও নানা অনিশ্চয়তার পর ২০২১ সালের ১৯শে ডিসেম্বর কর্মী নিয়োগে মালয়েশিয়া ও বাংলাদেশ একটি সমঝোতা স্মারক সই হয়।

২০২২ সালের দোসরা জুন মালয়েশিয়ার মানবসম্পদ মন্ত্রী এম সারাভানানের নেতৃত্বে ঢাকায় দুই দেশের বৈঠকে কারিগরি বিষয়সহ অমীমাংসিত ইস্যুগুলোর সমাধান হয়। শ্রমবাজার খোলার আনুষ্ঠানিক ঘোষণা দেন দুই মন্ত্রী। সমঝোতা স্মারক অনুযায়ী ২০২২ সালের ৮ই আগস্ট থেকে কর্মী যাওয়া শুরু হয় মালয়েশিয়ায়।

শুরুতে ২৫ রিক্রুটিং এজেন্সির মাধ্যমে বাংলাদেশ থেকে কর্মী নিয়ার ঘোষণা দেয় মালয়েশিয়া সরকার। পরে দুই দফায় আরও ৭৫টি রিক্রুটিং এজেন্সি যুক্ত করে দেশটি।

আরও পড়ুন:

মালয়েশিয়ায় পরিচয়পত্র পেশ করলেন বাংলাদেশি হাইকমিশনার

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

বাংলাদেশসহ ১৫ দেশ থেকে কর্মী নেয়া স্থগিত করল মালয়েশিয়া

আপডেট সময় : ০১:২০:৩৬ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৮ মার্চ ২০২৩

ডেস্ক রিপোর্ট

পরবর্তী নির্দেশ না দেয়া পর্যন্ত বাংলাদেশসহ ১৫টি দেশ থেকে নতুন করে বিদেশি কর্মী নেওয়ার কোটা অনুমোদনের আবেদন স্থগিত করেছে দেশটির মানবসম্পদ মন্ত্রণালয়। শনিবার (১৮ মার্চ) এক বিবৃতিতে এ তথ্য জানানো হয়।

মালয়েশিয়ার মানবসম্পদমন্ত্রী ভি শিবকুমার জানান, ফরেন ওয়ার্কার এমপ্লয়মেন্ট রিল্যাক্সেশন প্ল্যানে (পিকেপিপিএ) বিদেশি কর্মীদের জন্য কোটার আবেদন ও অনুমোদন ১৮ মার্চ থেকে পরবর্তী তারিখ ঘোষণা না দেওয়া পর্যন্ত স্থগিত করা হলো।

গত ১৪ই মার্চ পর্যন্ত বিভিন্ন সেক্টর থেকে বিদেশি কর্মীদের জন্য মোট ৯ লাখ ৯৫ হাজার ৩৯৬টি কর্মসংস্থান কোটা মন্ত্রণালয় অনুমোদন করার পরে এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

২০১৮ সালের পহেলা সেপ্টেম্বর থেকে বন্ধ ছিল বাংলাদেশ থেকে মালয়েশিয়ায় কর্মী নিয়োগ। দীর্ঘ দেনদরবার ও নানা অনিশ্চয়তার পর ২০২১ সালের ১৯শে ডিসেম্বর কর্মী নিয়োগে মালয়েশিয়া ও বাংলাদেশ একটি সমঝোতা স্মারক সই হয়।

২০২২ সালের দোসরা জুন মালয়েশিয়ার মানবসম্পদ মন্ত্রী এম সারাভানানের নেতৃত্বে ঢাকায় দুই দেশের বৈঠকে কারিগরি বিষয়সহ অমীমাংসিত ইস্যুগুলোর সমাধান হয়। শ্রমবাজার খোলার আনুষ্ঠানিক ঘোষণা দেন দুই মন্ত্রী। সমঝোতা স্মারক অনুযায়ী ২০২২ সালের ৮ই আগস্ট থেকে কর্মী যাওয়া শুরু হয় মালয়েশিয়ায়।

শুরুতে ২৫ রিক্রুটিং এজেন্সির মাধ্যমে বাংলাদেশ থেকে কর্মী নিয়ার ঘোষণা দেয় মালয়েশিয়া সরকার। পরে দুই দফায় আরও ৭৫টি রিক্রুটিং এজেন্সি যুক্ত করে দেশটি।

আরও পড়ুন:

মালয়েশিয়ায় পরিচয়পত্র পেশ করলেন বাংলাদেশি হাইকমিশনার