ঢাকা ০১:০২ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৮ মে ২০২৪

হয়রানি, সুপারিশ, ঘুষ ছাড়া ১২০ টাকায় পুলিশে চাকরি

পঞ্চগড় প্রতিবেদক
  • আপডেট সময় : ০৩:২৮:৪১ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৪ মার্চ ২০২৪ ৮৫ বার পড়া হয়েছে

সংগৃহীত

নিউজ ফর জাস্টিস অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

Police job :

‘সেবার ব্রতে চাকরি’ এই স্লোগানে শতভাগ মেধা যোগ্যতা ও স্বচ্ছতার মাধ্যমে দেশের উত্তরের জেলা পঞ্চগড়ে পুলিশের ট্রেইনি রিক্রুট কনস্টেবল (টিআরসি) পদের নিয়োগ পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়ে পুলিশের চাকরি পেয়েছেন ২৫ তরুণ-তরুণী।
কোনো প্রকার হয়রানি, সুপারিশ এবং ঘুষ ছাড়া পুলিশের গর্বিত সদস্য হতে পেরে খুশিতে আত্মহারা হতদরিদ্র ও মধ্যবিত্ত পরিবারে এসব তরুণ-তরুণী। এই চাকরি পেতে অনলাইন আবেদন খরচ বাবদ জনপ্রতি খরচ হয়েছে মাত্র ১২০ টাকা।

বুধবার (১৩ মার্চ) রাতে পঞ্চগড় পুলিশ লাইনে নতুন চাকরি পাওয়ায় এই তরুণ-তরুণীদের পরীক্ষার চূড়ান্ত ফল ঘোষণা করেন পঞ্চগড় পুলিশ সুপার এস এম সিরাজুল হুদা। এতে ২১ জন ছেলে এবং ৪ জন মেয়ে প্রাথমিকভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। এ সময় তাদের ফুল দিয়ে বরণ করে নেন জেলা পুলিশ।

জানা গেছে, দেশের আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণসহ সাধারণ মানুষের নিরাপত্তায় জানুয়ারি ২০২৪ এর ট্রেইনি রিক্রুট কনস্টেবল (টিআরসি) পদের নিয়োগ পরীক্ষার চূড়ান্ত ফলাফল প্রকাশের মাধ্যমে তাদের নির্বাচিত করা হয়। এ সময় এক আনন্দঘন মুহূর্ত দেখা গেছে পুলিশ লাইনে।

নিজ যোগ্যতায় ও মেধায় চাকরির ফলাফল পাওয়া মাত্রই ২৫ তরুণ-তরুণী আনন্দে বিমোহিত হয়। এ সময় পুলিশের ড্রিল শেড মুহূর্তের মধ্যে পরিণত হয় আনন্দ ও কান্নার মিলনমেলায়। অনেকের নাম ঘোষণার পরপরই দুই নয়ন অশ্রুতে ভিজে যায়। অনেকেই চাকরি পেয়ে আনন্দ উল্লাস করেন। তাদের মধ্যে অপু হায়দার, শাকিবা জান্নাত শাম্মী ও শাপলাসহ অনেকে।

এ বিষয়ে চাকরি পাওয়া সাকিবা জান্নাত শাম্মী বলেন, জীবনে প্রথমবার চাকরির আবেদন করে আজ নিজের মেধা ও যোগ্যতায় চাকরি পাওয়ায় আমি ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানাই বাংলাদেশ পুলিশকে। আমি স্কুল পর্যায়ে হ্যান্ডবল খেলোয়াড় হিসেবে দেশ-বিদেশে খেলেছি। করেছি অধিনায়কের দায়িত্ব, অর্জন করেছি শিরোপাও। এবার বাংলাদেশ পুলিশের হয়ে খেলতে চাই। সেবা করতে চাই মানুষের। অর্জন করতে চাই বাংলাদেশ পুলিশের হয়ে শিরোপা।

এদিকে বাবা হারা অপু হায়দার মহানন্দা নদীতে পাথর উত্তোলন করে পরিবার চালাতো। তিনি বলেন, আমার বাবা হার্টএটাকে মারা গেছেন। গত চার বছর ধরে তেঁতুলিয়া মহানন্দা নদীতে পাথর উত্তোলন করে পরিবার চালিয়ে আসছি। একই সঙ্গে নিজের লেখাপড়া চালাচ্ছি। আজকে পুলিশের চাকরি পেয়ে অনেক আনন্দিত। আমি আমার পরিবার নিয়ে খুব কষ্টে দিন পার করছিলাম। আমি সবার কাছে দোয়া চাই। আমিও যেন এই পুলিশের চাকরির মাধ্যমে মানুষের সেবা করতে পারি।

এ বিষয়ে পঞ্চগড় পুলিশ সুপার এসএম সিরাজুল হুদা বলেন, নিজের যোগ্যতা ও মেধার ভিত্তিতে চাকরি পেল ২৫ তরুণ-তরুণী। যারা আজ নিয়োগ পেয়েছেন তারা সবাই নিজেদের যোগ্যতায় ও মেধায় উত্তীর্ণ হয়েছেন। এতে তাদের কোনো যোগাযোগ, লবিং ও ঘুষ বিনিময় করতে হয়নি।

আশা করছি, আজকে যারা পরীক্ষা উত্তীর্ণ হয়ে বাংলাদেশ পুলিশের নতুন সদস্য হলেন তারা সবাই দেশ ও জাতির কল্যাণে কাজ করবে।

/শিল্পী/

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

হয়রানি, সুপারিশ, ঘুষ ছাড়া ১২০ টাকায় পুলিশে চাকরি

আপডেট সময় : ০৩:২৮:৪১ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৪ মার্চ ২০২৪

Police job :

‘সেবার ব্রতে চাকরি’ এই স্লোগানে শতভাগ মেধা যোগ্যতা ও স্বচ্ছতার মাধ্যমে দেশের উত্তরের জেলা পঞ্চগড়ে পুলিশের ট্রেইনি রিক্রুট কনস্টেবল (টিআরসি) পদের নিয়োগ পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়ে পুলিশের চাকরি পেয়েছেন ২৫ তরুণ-তরুণী।
কোনো প্রকার হয়রানি, সুপারিশ এবং ঘুষ ছাড়া পুলিশের গর্বিত সদস্য হতে পেরে খুশিতে আত্মহারা হতদরিদ্র ও মধ্যবিত্ত পরিবারে এসব তরুণ-তরুণী। এই চাকরি পেতে অনলাইন আবেদন খরচ বাবদ জনপ্রতি খরচ হয়েছে মাত্র ১২০ টাকা।

বুধবার (১৩ মার্চ) রাতে পঞ্চগড় পুলিশ লাইনে নতুন চাকরি পাওয়ায় এই তরুণ-তরুণীদের পরীক্ষার চূড়ান্ত ফল ঘোষণা করেন পঞ্চগড় পুলিশ সুপার এস এম সিরাজুল হুদা। এতে ২১ জন ছেলে এবং ৪ জন মেয়ে প্রাথমিকভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। এ সময় তাদের ফুল দিয়ে বরণ করে নেন জেলা পুলিশ।

জানা গেছে, দেশের আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণসহ সাধারণ মানুষের নিরাপত্তায় জানুয়ারি ২০২৪ এর ট্রেইনি রিক্রুট কনস্টেবল (টিআরসি) পদের নিয়োগ পরীক্ষার চূড়ান্ত ফলাফল প্রকাশের মাধ্যমে তাদের নির্বাচিত করা হয়। এ সময় এক আনন্দঘন মুহূর্ত দেখা গেছে পুলিশ লাইনে।

নিজ যোগ্যতায় ও মেধায় চাকরির ফলাফল পাওয়া মাত্রই ২৫ তরুণ-তরুণী আনন্দে বিমোহিত হয়। এ সময় পুলিশের ড্রিল শেড মুহূর্তের মধ্যে পরিণত হয় আনন্দ ও কান্নার মিলনমেলায়। অনেকের নাম ঘোষণার পরপরই দুই নয়ন অশ্রুতে ভিজে যায়। অনেকেই চাকরি পেয়ে আনন্দ উল্লাস করেন। তাদের মধ্যে অপু হায়দার, শাকিবা জান্নাত শাম্মী ও শাপলাসহ অনেকে।

এ বিষয়ে চাকরি পাওয়া সাকিবা জান্নাত শাম্মী বলেন, জীবনে প্রথমবার চাকরির আবেদন করে আজ নিজের মেধা ও যোগ্যতায় চাকরি পাওয়ায় আমি ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানাই বাংলাদেশ পুলিশকে। আমি স্কুল পর্যায়ে হ্যান্ডবল খেলোয়াড় হিসেবে দেশ-বিদেশে খেলেছি। করেছি অধিনায়কের দায়িত্ব, অর্জন করেছি শিরোপাও। এবার বাংলাদেশ পুলিশের হয়ে খেলতে চাই। সেবা করতে চাই মানুষের। অর্জন করতে চাই বাংলাদেশ পুলিশের হয়ে শিরোপা।

এদিকে বাবা হারা অপু হায়দার মহানন্দা নদীতে পাথর উত্তোলন করে পরিবার চালাতো। তিনি বলেন, আমার বাবা হার্টএটাকে মারা গেছেন। গত চার বছর ধরে তেঁতুলিয়া মহানন্দা নদীতে পাথর উত্তোলন করে পরিবার চালিয়ে আসছি। একই সঙ্গে নিজের লেখাপড়া চালাচ্ছি। আজকে পুলিশের চাকরি পেয়ে অনেক আনন্দিত। আমি আমার পরিবার নিয়ে খুব কষ্টে দিন পার করছিলাম। আমি সবার কাছে দোয়া চাই। আমিও যেন এই পুলিশের চাকরির মাধ্যমে মানুষের সেবা করতে পারি।

এ বিষয়ে পঞ্চগড় পুলিশ সুপার এসএম সিরাজুল হুদা বলেন, নিজের যোগ্যতা ও মেধার ভিত্তিতে চাকরি পেল ২৫ তরুণ-তরুণী। যারা আজ নিয়োগ পেয়েছেন তারা সবাই নিজেদের যোগ্যতায় ও মেধায় উত্তীর্ণ হয়েছেন। এতে তাদের কোনো যোগাযোগ, লবিং ও ঘুষ বিনিময় করতে হয়নি।

আশা করছি, আজকে যারা পরীক্ষা উত্তীর্ণ হয়ে বাংলাদেশ পুলিশের নতুন সদস্য হলেন তারা সবাই দেশ ও জাতির কল্যাণে কাজ করবে।

/শিল্পী/