ঢাকা ০২:১৯ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৩ জুন ২০২৪

মেডিকেল ছাত্রকে গুলি : সাময়িক বরখাস্ত শিক্ষক রায়হান

সিরাজগঞ্জ প্রতিবেদক
  • আপডেট সময় : ০৪:১৪:২৫ অপরাহ্ন, বুধবার, ৬ মার্চ ২০২৪ ১১৫ বার পড়া হয়েছে

সংগৃহীত

নিউজ ফর জাস্টিস অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

Medical student shot:

সিরাজগঞ্জ শহীদ এম মনসুর আলী মেডিকেল কলেজের ছাত্র আরাফাত আমিন তমালকে গুলি করার ঘটনায় অভিযুক্ত শিক্ষক ডা. রায়হান শরীফকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে।

বুধবার (৬ মার্চ) রাষ্ট্রপতির আদেশে স্বাস্থ্য ও পরিবারকল্যাণ মন্ত্রণালয়ের উপসচিব দূর-রে শাহওয়াজ স্বাক্ষরিত এক প্রজ্ঞাপনে তাকে সাময়িক বরখাস্তের আদেশ দেওয়া হয়।

প্রজ্ঞাপনে উল্লেখ করা হয়, শহীদ এম মনসুর আলী মেডিকেল কলেজের কমিউনিটি মেডিসিন বিভাগের প্রভাষক ডা. মো. রায়হান শরীফ (২১৩৮৯২) ফৌজদারি অপরাধে গ্রেপ্তার হওয়ায় তাকে সাময়িক বরখাস্ত করা হলো। সাময়িক বরাখাস্ত থাকার সময়ে তিনি বিধি মোতাবেক খোরপোষ ভাতা প্রাপ্ত হবেন।

বুধবার দুপুরে কলেজের অধ্যক্ষ ডা. আমিরুল হোসেন এ তথ্য নিশ্চিত করে জানান, ছাত্রদের দাবি ছিল, ডা. রায়হান শরীফ যেন কলেজে না থাকতে পারেন। এরই মধ্যে তাকে সাময়িক বরখাস্তের চিঠি এসেছে।

এর আগে সোমবার (৪ মার্চ) স্বাস্থ্য শিক্ষা অধিদপ্তরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক (প্রশাসন) অধ্যাপক ডা. বায়জীদ খুরশীদ রিয়াজকে আহ্বায়ক করে তদন্ত কমিটি গঠন করেন উপসচিব দূর-রে শাহওয়াজ। এ কমিটির অন্য দুই সদস্য হলেন স্বাস্থ্য শিক্ষা অধিদপ্তরের পরিচালক (চিকিৎসা শিক্ষা) অধ্যাপক মো. মহিউদ্দিন মাতুব্বর এবং স্বাস্থ্য শিক্ষা ও পরিবার কল্যাণ বিভাগের উপসচিব মোহাম্মদ মোহসীন উদ্দিন।

সোমবার (৪ মার্চ) বিকেল ৫টায় শিক্ষক রায়হান শরীফ পিস্তল ও ধারালো ছুরি নিয়ে হঠাৎ করে ক্লাসে ঢোকেন। এসময় তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে ছাত্রছাত্রীদের সঙ্গে কথা কাটাকাটি শুরু হয় তার। একপর্যায়ে তৃতীয় বর্ষের ছাত্র আরাফাত আমিন তমালকে গুলি করেন তিনি। গুলিটি তার উরুতে লাগে। এসময় তার চিৎকারে সবাই এগিয়ে এলে ডা. রায়হান শরীফকে তালাবদ্ধ করে রাখা হয়। পরে পুলিশ তাকে গ্রেপ্তার করে।

একই দিন রাত ১২টার দিকে আহত তমালের বাবা আব্দুল্লাহ আল আমিন বাদী হয়ে সিরাজগঞ্জ সদর থানায় একটি মামলা করেন। তমালদের বাড়ি বগুড়ার ধনুট উপজেলার ধামাচামা গ্রামে।

/শিল্পী/

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

মেডিকেল ছাত্রকে গুলি : সাময়িক বরখাস্ত শিক্ষক রায়হান

আপডেট সময় : ০৪:১৪:২৫ অপরাহ্ন, বুধবার, ৬ মার্চ ২০২৪

Medical student shot:

সিরাজগঞ্জ শহীদ এম মনসুর আলী মেডিকেল কলেজের ছাত্র আরাফাত আমিন তমালকে গুলি করার ঘটনায় অভিযুক্ত শিক্ষক ডা. রায়হান শরীফকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে।

বুধবার (৬ মার্চ) রাষ্ট্রপতির আদেশে স্বাস্থ্য ও পরিবারকল্যাণ মন্ত্রণালয়ের উপসচিব দূর-রে শাহওয়াজ স্বাক্ষরিত এক প্রজ্ঞাপনে তাকে সাময়িক বরখাস্তের আদেশ দেওয়া হয়।

প্রজ্ঞাপনে উল্লেখ করা হয়, শহীদ এম মনসুর আলী মেডিকেল কলেজের কমিউনিটি মেডিসিন বিভাগের প্রভাষক ডা. মো. রায়হান শরীফ (২১৩৮৯২) ফৌজদারি অপরাধে গ্রেপ্তার হওয়ায় তাকে সাময়িক বরখাস্ত করা হলো। সাময়িক বরাখাস্ত থাকার সময়ে তিনি বিধি মোতাবেক খোরপোষ ভাতা প্রাপ্ত হবেন।

বুধবার দুপুরে কলেজের অধ্যক্ষ ডা. আমিরুল হোসেন এ তথ্য নিশ্চিত করে জানান, ছাত্রদের দাবি ছিল, ডা. রায়হান শরীফ যেন কলেজে না থাকতে পারেন। এরই মধ্যে তাকে সাময়িক বরখাস্তের চিঠি এসেছে।

এর আগে সোমবার (৪ মার্চ) স্বাস্থ্য শিক্ষা অধিদপ্তরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক (প্রশাসন) অধ্যাপক ডা. বায়জীদ খুরশীদ রিয়াজকে আহ্বায়ক করে তদন্ত কমিটি গঠন করেন উপসচিব দূর-রে শাহওয়াজ। এ কমিটির অন্য দুই সদস্য হলেন স্বাস্থ্য শিক্ষা অধিদপ্তরের পরিচালক (চিকিৎসা শিক্ষা) অধ্যাপক মো. মহিউদ্দিন মাতুব্বর এবং স্বাস্থ্য শিক্ষা ও পরিবার কল্যাণ বিভাগের উপসচিব মোহাম্মদ মোহসীন উদ্দিন।

সোমবার (৪ মার্চ) বিকেল ৫টায় শিক্ষক রায়হান শরীফ পিস্তল ও ধারালো ছুরি নিয়ে হঠাৎ করে ক্লাসে ঢোকেন। এসময় তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে ছাত্রছাত্রীদের সঙ্গে কথা কাটাকাটি শুরু হয় তার। একপর্যায়ে তৃতীয় বর্ষের ছাত্র আরাফাত আমিন তমালকে গুলি করেন তিনি। গুলিটি তার উরুতে লাগে। এসময় তার চিৎকারে সবাই এগিয়ে এলে ডা. রায়হান শরীফকে তালাবদ্ধ করে রাখা হয়। পরে পুলিশ তাকে গ্রেপ্তার করে।

একই দিন রাত ১২টার দিকে আহত তমালের বাবা আব্দুল্লাহ আল আমিন বাদী হয়ে সিরাজগঞ্জ সদর থানায় একটি মামলা করেন। তমালদের বাড়ি বগুড়ার ধনুট উপজেলার ধামাচামা গ্রামে।

/শিল্পী/