ঢাকা ০৮:১১ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ২১ এপ্রিল ২০২৪

বৃষ্টির জন্য সুনামগঞ্জে বিশেষ মোনাজাত

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ১১:২২:৫৯ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ১৩ মার্চ ২০২৩ ১১৯ বার পড়া হয়েছে
নিউজ ফর জাস্টিস অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

সুনামগঞ্জ সংবাদদাতা

ফসল রক্ষায় বৃষ্টির জন্য বিশেষ দোয়া ও মোনাজাত করেছেন সুনামগঞ্জ জামালগঞ্জের এলাকাবাসী। মোনাজাতে অংশ নেওয়ার জন্য মাইকিং করা হয় বিভিন্ন গ্রামসহ এলাকার প্রধান প্রধান বাজারগুলোতে। এ সময় আল্লাহর দরবারে দুই হাত তুলে বৃষ্টির জন্য কান্না করেন স্থানীয়রা।

সোমবার (১৩ মার্চ) সকালে উপজেলার উত্তর ইউনিয়নের লম্বাবাঁক গ্রামের বড় মাঠে এই বিশেষ মোনাজাত করা হয়।

স্থানীয়রা জানান, বড় পুকুর, জলাশয়, খাল-বিল শুকিয়ে তৈরি হয়েছে তীব্র পানির সংকট। নষ্ট হয়ে যাচ্ছে বোরো ফসল। চরম শঙ্কা আর অস্বস্তিতে রয়েছেন হাওর পারের কৃষকেরা। হুমকির মুখে রয়েছে বিভিন্ন জাতের ধানের চারা। পানির অভাবে ধানের চারায় মাজরা পোকা নামে একধরনের কীট ধান খেত নষ্ট করছে। এমন পরিস্থিতিতে বৃষ্টির জন্য উপজেলার বিভিন্ন গ্রামে আয়োজন করা হয়েছে বিশেষ দোয়া ও মোনাজাতের।

এদিকে একই দিনে জামালগঞ্জ সদর ইউনিয়নের নয়াহালট গ্রামেও বিশেষ দোয়া ও মোনাজাতের আয়োজন করা হয়। এটি পরিচালনা করেন লম্বাবাঁক গ্রামের মসজিদের ইমাম মাও. ইয়াহিয়া বিন।

মসজিদ পরিচালনা কমিটির সভাপতি আব্দুর রহমান ওরফে ময়না মিয়া গণমাধ্যমকে বলেন, এর আগে কখনো এতটা পানি শূন্যতা দেখিনি। তীব্র খরায় আমাদের ধানের জমি নষ্ট হয়ে যাচ্ছে। তাই বৃষ্টির জন্য কয়েক গ্রামের লোকজন মিলে আল্লাহর দরবারে প্রার্থনার আয়োজন করেছি।

রইস/১৩

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

বৃষ্টির জন্য সুনামগঞ্জে বিশেষ মোনাজাত

আপডেট সময় : ১১:২২:৫৯ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ১৩ মার্চ ২০২৩

সুনামগঞ্জ সংবাদদাতা

ফসল রক্ষায় বৃষ্টির জন্য বিশেষ দোয়া ও মোনাজাত করেছেন সুনামগঞ্জ জামালগঞ্জের এলাকাবাসী। মোনাজাতে অংশ নেওয়ার জন্য মাইকিং করা হয় বিভিন্ন গ্রামসহ এলাকার প্রধান প্রধান বাজারগুলোতে। এ সময় আল্লাহর দরবারে দুই হাত তুলে বৃষ্টির জন্য কান্না করেন স্থানীয়রা।

সোমবার (১৩ মার্চ) সকালে উপজেলার উত্তর ইউনিয়নের লম্বাবাঁক গ্রামের বড় মাঠে এই বিশেষ মোনাজাত করা হয়।

স্থানীয়রা জানান, বড় পুকুর, জলাশয়, খাল-বিল শুকিয়ে তৈরি হয়েছে তীব্র পানির সংকট। নষ্ট হয়ে যাচ্ছে বোরো ফসল। চরম শঙ্কা আর অস্বস্তিতে রয়েছেন হাওর পারের কৃষকেরা। হুমকির মুখে রয়েছে বিভিন্ন জাতের ধানের চারা। পানির অভাবে ধানের চারায় মাজরা পোকা নামে একধরনের কীট ধান খেত নষ্ট করছে। এমন পরিস্থিতিতে বৃষ্টির জন্য উপজেলার বিভিন্ন গ্রামে আয়োজন করা হয়েছে বিশেষ দোয়া ও মোনাজাতের।

এদিকে একই দিনে জামালগঞ্জ সদর ইউনিয়নের নয়াহালট গ্রামেও বিশেষ দোয়া ও মোনাজাতের আয়োজন করা হয়। এটি পরিচালনা করেন লম্বাবাঁক গ্রামের মসজিদের ইমাম মাও. ইয়াহিয়া বিন।

মসজিদ পরিচালনা কমিটির সভাপতি আব্দুর রহমান ওরফে ময়না মিয়া গণমাধ্যমকে বলেন, এর আগে কখনো এতটা পানি শূন্যতা দেখিনি। তীব্র খরায় আমাদের ধানের জমি নষ্ট হয়ে যাচ্ছে। তাই বৃষ্টির জন্য কয়েক গ্রামের লোকজন মিলে আল্লাহর দরবারে প্রার্থনার আয়োজন করেছি।

রইস/১৩