ঢাকা ০৯:১২ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ২১ এপ্রিল ২০২৪

দীর্ঘ সাত বছরের প্রেম পূর্ণতা পেল ১০১ টাকায়

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ১০:২৮:০২ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২ মার্চ ২০২৩ ১১৭ বার পড়া হয়েছে
নিউজ ফর জাস্টিস অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

পটুয়াখালী প্রতিনিধি

বাংলাদেশী যুবক ইমরান ও ইন্দোনেশিয়ান তরুণী নীকির মধ্যে দীর্ঘ সাত বছরের প্রেম পূর্ণতা পেল ১০১ টাকা দেনমোহরে বিয়ের মাধ্যমে। বুধবার পটুয়াখালী সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে আইনজীবীর মাধ্যমে আইনি প্রক্রিয়া শেষে বিকেলে বাউফলে ইমরানের বাড়িতে এ বিয়ে সম্পন্ন হয়।

বুধবার রাত ৮ টার সময় স্থানীয় মসজিদের ইমাম মাওলানা শহিদুল ইসলাম এক ডলারের মান অনুযায়ী ১০১ টাকা দেনমোহরে এই যুগলের বিয়ে পড়ান। এরপরে বাংলাদেশের নিয়ম অনুসারে গায়ে হলুদ অনুষ্ঠিত হয়। বৃহস্পতিবার (২ মার্চ) দুপুরে বিবাহোত্তর সংবর্ধনা অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে।

ইমরান পটুয়াখালী জেলার বাউফল উপজেলার দাসপাড়া ইউনিয়নে দেলোয়ার হোসেনের ছেলে। বর্তমানে তিনি ঢাকার একটি বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে কর্মরত আছেন। এদিকে কনে নিকি উল ফিয়া ইন্দোনেশিয়ার সুরাবায়া প্রদেশের জেম্বার এলাকার বাসিন্দা ইউলিয়ানতোর মেয়ে। তার মায়ের নাম শ্রীআনি।

গত সোমবার ফ্লাইটে করে বাংলাদেশের শাহজালাল বিমানবন্দরে আসেন ওই তরুণী। পরে ঢাকা থেকে লঞ্চে বুধবার সকালে পটুয়াখালীতে আসেন নিকি।

ইমরানের মামা কবির বলেন, অনেক বছর আগে থেকে ইমরানের সাথে নিকির পরিচয়। ২০১৭ সালের ডিসেম্বরে নিকি বাংলাদেশে এসেছিল কিন্তু তখন ছেলে এবং মেয়ের বিয়ের বয়স না হওয়ায় নিকি বাংলাদেশে ১৫ দিন থেকে আবার ইন্দোনেশিয়া চলে যায়। দুই পরিবারের নিয়মিত যোগাযোগ ছিল। এরই ধারাবাহিকতায় দুই পরিবারের সম্মতিতে বিয়ে অনুষ্ঠিত হয়েছে।

রইস/২

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

দীর্ঘ সাত বছরের প্রেম পূর্ণতা পেল ১০১ টাকায়

আপডেট সময় : ১০:২৮:০২ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২ মার্চ ২০২৩

পটুয়াখালী প্রতিনিধি

বাংলাদেশী যুবক ইমরান ও ইন্দোনেশিয়ান তরুণী নীকির মধ্যে দীর্ঘ সাত বছরের প্রেম পূর্ণতা পেল ১০১ টাকা দেনমোহরে বিয়ের মাধ্যমে। বুধবার পটুয়াখালী সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে আইনজীবীর মাধ্যমে আইনি প্রক্রিয়া শেষে বিকেলে বাউফলে ইমরানের বাড়িতে এ বিয়ে সম্পন্ন হয়।

বুধবার রাত ৮ টার সময় স্থানীয় মসজিদের ইমাম মাওলানা শহিদুল ইসলাম এক ডলারের মান অনুযায়ী ১০১ টাকা দেনমোহরে এই যুগলের বিয়ে পড়ান। এরপরে বাংলাদেশের নিয়ম অনুসারে গায়ে হলুদ অনুষ্ঠিত হয়। বৃহস্পতিবার (২ মার্চ) দুপুরে বিবাহোত্তর সংবর্ধনা অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে।

ইমরান পটুয়াখালী জেলার বাউফল উপজেলার দাসপাড়া ইউনিয়নে দেলোয়ার হোসেনের ছেলে। বর্তমানে তিনি ঢাকার একটি বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে কর্মরত আছেন। এদিকে কনে নিকি উল ফিয়া ইন্দোনেশিয়ার সুরাবায়া প্রদেশের জেম্বার এলাকার বাসিন্দা ইউলিয়ানতোর মেয়ে। তার মায়ের নাম শ্রীআনি।

গত সোমবার ফ্লাইটে করে বাংলাদেশের শাহজালাল বিমানবন্দরে আসেন ওই তরুণী। পরে ঢাকা থেকে লঞ্চে বুধবার সকালে পটুয়াখালীতে আসেন নিকি।

ইমরানের মামা কবির বলেন, অনেক বছর আগে থেকে ইমরানের সাথে নিকির পরিচয়। ২০১৭ সালের ডিসেম্বরে নিকি বাংলাদেশে এসেছিল কিন্তু তখন ছেলে এবং মেয়ের বিয়ের বয়স না হওয়ায় নিকি বাংলাদেশে ১৫ দিন থেকে আবার ইন্দোনেশিয়া চলে যায়। দুই পরিবারের নিয়মিত যোগাযোগ ছিল। এরই ধারাবাহিকতায় দুই পরিবারের সম্মতিতে বিয়ে অনুষ্ঠিত হয়েছে।

রইস/২