ঢাকা ০১:৪৫ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৮ মে ২০২৪

গণপিটুনিতে ৪ ডাকাত নিহত হওয়ার ঘটনায় মামলা

সোনারগাঁও (নারায়ণগঞ্জ) প্রতিবেদক
  • আপডেট সময় : ১০:১৯:৫৩ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৯ মার্চ ২০২৪ ৯০ বার পড়া হয়েছে

সংগৃহীত

নিউজ ফর জাস্টিস অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

4 robber :

নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁয়ে গ্রামবাসীর গণপিটুনিতে ডাকাত নিহত হওয়ার ঘটনায় মামলা দায়ের করা হয়েছে।

মঙ্গলবার (১৯ মার্চ) বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন সোনারগাঁ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এসএম কামরুজ্জামান।

সোমবার (১৮ মার্চ) রাতে সোনারগাঁ থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) মো. মামুন খাঁন বাদী হয়ে এ মামলা দায়ের করেন। মামলায় ওই এলাকায় অজ্ঞাতপরিচয় আসামি করা হয়।

জানা যায়, উপজেলার কাঁচপুর ও সাদিপুর ইউনিয়নের বিভিন্ন গ্রামের গত তিনদিন ধরে ডাকাতি সংঘটিত হয়ে আসছিল। শুক্রবার (১৫ মার্চ) রাতে সাদিপুর ইউনিয়নের কাজহরদী কুন্দেরপাড়া গ্রামে বাড়ির মালিক ইসলাম মুন্সিকে কুপিয়ে দুই বাড়িতে ডাকাতি করে নগদ টাকা ও স্বর্ণলংকার লুট করে নিয়ে যায়। শনিবার (১৬ মার্চ) রাতেও কাজহরদী এলাকায় ডাকাতির প্রস্তুতি নিচ্ছিল। পরে এলাকাবাসী মাইকে ঘোষণা দিলে ডাকাতরা পালিয়ে যায়।

রোববার (১৭ মার্চ) রাতে ইউনিয়নের বাঘরী গ্রামের বিলে একটি টিলার মধ্যে ১০-১২ জন ডাকাত পার্শ্ববর্তী কাজহরদী গ্রামের বানিয়া বাড়িতে ডাকাতির প্রস্তুতি নিচ্ছিল। এসময় স্থানীয় কয়েকজন তাদের দেখতে পেয়ে প্রথমে কাজহরদী গ্রামের মসজিদে মাইকে ডাকাতদের প্রতিহত করার ঘোষণা দেয়।

কাজহরদী গ্রামের মাইকে ঘোষণার পর আশপাশের ৫-৭টি গ্রামের মসজিদের মাইকে ডাকাত পড়েছে বলে ঘোষণা দেওয়া হয়। একপর্যায়ে গ্রামবাসী একত্রে হয়ে লাঠিসোটা ও দেশীয় অস্ত্র নিয়ে ডাকাতদের চারদিক থেকে ঘিরে ফেলে। এসময় দুই ডাকাত পালানোর চেষ্টা করলে তাদের ধাওয়া দিয়ে ধরে গণপিটুনি দেয়।

গণপিটুনিতে এ সময় ডাকাত সর্দার জাকির হোসেন তার সহযোগী নবী হোসেন ও আব্দুর রহিম ও অজ্ঞাতপরিচয় আরেক ডাকাত নিহত হয়। এ সময় মোহাম্মদ আলী নামের আরেক ডাকাত পঙ্গু হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে।

সোনারগাঁ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এস এম কামরুজ্জামান বলেন, গণপিটুনিতে চার ডাকাত নিহত হওয়ার ঘটনায় মামলা হয়েছে। বিষয়টি গুরুত্বে সঙ্গে তদন্ত করা হচ্ছে।

/শিল্পী/

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

গণপিটুনিতে ৪ ডাকাত নিহত হওয়ার ঘটনায় মামলা

আপডেট সময় : ১০:১৯:৫৩ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৯ মার্চ ২০২৪

4 robber :

নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁয়ে গ্রামবাসীর গণপিটুনিতে ডাকাত নিহত হওয়ার ঘটনায় মামলা দায়ের করা হয়েছে।

মঙ্গলবার (১৯ মার্চ) বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন সোনারগাঁ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এসএম কামরুজ্জামান।

সোমবার (১৮ মার্চ) রাতে সোনারগাঁ থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) মো. মামুন খাঁন বাদী হয়ে এ মামলা দায়ের করেন। মামলায় ওই এলাকায় অজ্ঞাতপরিচয় আসামি করা হয়।

জানা যায়, উপজেলার কাঁচপুর ও সাদিপুর ইউনিয়নের বিভিন্ন গ্রামের গত তিনদিন ধরে ডাকাতি সংঘটিত হয়ে আসছিল। শুক্রবার (১৫ মার্চ) রাতে সাদিপুর ইউনিয়নের কাজহরদী কুন্দেরপাড়া গ্রামে বাড়ির মালিক ইসলাম মুন্সিকে কুপিয়ে দুই বাড়িতে ডাকাতি করে নগদ টাকা ও স্বর্ণলংকার লুট করে নিয়ে যায়। শনিবার (১৬ মার্চ) রাতেও কাজহরদী এলাকায় ডাকাতির প্রস্তুতি নিচ্ছিল। পরে এলাকাবাসী মাইকে ঘোষণা দিলে ডাকাতরা পালিয়ে যায়।

রোববার (১৭ মার্চ) রাতে ইউনিয়নের বাঘরী গ্রামের বিলে একটি টিলার মধ্যে ১০-১২ জন ডাকাত পার্শ্ববর্তী কাজহরদী গ্রামের বানিয়া বাড়িতে ডাকাতির প্রস্তুতি নিচ্ছিল। এসময় স্থানীয় কয়েকজন তাদের দেখতে পেয়ে প্রথমে কাজহরদী গ্রামের মসজিদে মাইকে ডাকাতদের প্রতিহত করার ঘোষণা দেয়।

কাজহরদী গ্রামের মাইকে ঘোষণার পর আশপাশের ৫-৭টি গ্রামের মসজিদের মাইকে ডাকাত পড়েছে বলে ঘোষণা দেওয়া হয়। একপর্যায়ে গ্রামবাসী একত্রে হয়ে লাঠিসোটা ও দেশীয় অস্ত্র নিয়ে ডাকাতদের চারদিক থেকে ঘিরে ফেলে। এসময় দুই ডাকাত পালানোর চেষ্টা করলে তাদের ধাওয়া দিয়ে ধরে গণপিটুনি দেয়।

গণপিটুনিতে এ সময় ডাকাত সর্দার জাকির হোসেন তার সহযোগী নবী হোসেন ও আব্দুর রহিম ও অজ্ঞাতপরিচয় আরেক ডাকাত নিহত হয়। এ সময় মোহাম্মদ আলী নামের আরেক ডাকাত পঙ্গু হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে।

সোনারগাঁ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এস এম কামরুজ্জামান বলেন, গণপিটুনিতে চার ডাকাত নিহত হওয়ার ঘটনায় মামলা হয়েছে। বিষয়টি গুরুত্বে সঙ্গে তদন্ত করা হচ্ছে।

/শিল্পী/