ঢাকা ০৯:৫৫ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৩ জুন ২০২৪

কোনাপাড়া সিলিন্ডার বিস্ফোরণ

মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়ালো পাঁচজনে

নিজস্ব প্রতিবেদক
  • আপডেট সময় : ০১:১৮:৫৯ অপরাহ্ন, রবিবার, ১৭ মার্চ ২০২৪ ৯৯ বার পড়া হয়েছে

ফাইল ফটো

নিউজ ফর জাস্টিস অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

 

গাজীপুর জেলার কালিয়াকৈরের কোনাপাড়া এলাকায় গ্যাস সিলিন্ডার বিস্ফোরণে দগ্ধ আরিফুল ইসলাম (৩৫) ও মহিদুল (২৪) নামে আরও দুজনের মৃত্যু হয়েছে। এই ঘটনায় মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়ালো পাঁচজনে।

আজ রোববার (১৭ মার্চ) সকালে তারা শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন ও প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তারা মারা যান।

আরিফুল ইসলাম রাজশাহীর বাঘা উপজেলার এলাইপুর গ্রামের মো. আব্দুর রাজ্জাক বিশ্বাসের ছেলে। কোনাপাড়া এলাকায় ভাড়া থাকতেন তিনি। অপরদিকে মো. মহিদুল সিরাজগঞ্জের শাহাজাদপুর থানার পূর্ব ভিরাখোলা গ্রামের মো. সাবেদ আলী খানের ছেলে।

শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন ও প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটের আবাসিক চিকিৎসক ডা. তরিকুল ইসলাম জানান, ভোর পাঁচটার দিকে আরিফুল ইসলাম মারা যান। তার শরীরের ৭০ শতাংশ দগ্ধ হয়েছিল। অপরদিকে মহিদুল সকাল পৌনে ৭টার দিকে মারা যান। তার শরীরের ৯৫ শতাংশ দগ্ধ হয়েছিল।

ডা. তরিকুল ইসলাম আরও জানান, এই ঘটনায় গত শনিবার সকালে মনসুর আলী, শুক্রবার সকালে সোলাইমান মোল্লা এবং সন্ধ্যার দিকে শিশু তায়েবা মারা যায়। অন্যদের অবস্থা আশঙ্কাজনক।

আরিফুল ইসলাম রাজশাহীর বাঘা উপজেলার এলাইপুর গ্রামের মো. আব্দুর রাজ্জাক বিশ্বাসের ছেলে। কালিয়াকৈরের কোনাপাড়া এলাকায় ভাড়া থাকতেন তিনি। অপরদিকে মো. মহিদুল সিরাজগঞ্জের শাহাজাদপুর থানার পূর্ব ভিরাখোলা গ্রামের মো. সাবেদ আলী খানের ছেলে।

এম.নাসির/১৭

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

কোনাপাড়া সিলিন্ডার বিস্ফোরণ

মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়ালো পাঁচজনে

আপডেট সময় : ০১:১৮:৫৯ অপরাহ্ন, রবিবার, ১৭ মার্চ ২০২৪

 

গাজীপুর জেলার কালিয়াকৈরের কোনাপাড়া এলাকায় গ্যাস সিলিন্ডার বিস্ফোরণে দগ্ধ আরিফুল ইসলাম (৩৫) ও মহিদুল (২৪) নামে আরও দুজনের মৃত্যু হয়েছে। এই ঘটনায় মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়ালো পাঁচজনে।

আজ রোববার (১৭ মার্চ) সকালে তারা শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন ও প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তারা মারা যান।

আরিফুল ইসলাম রাজশাহীর বাঘা উপজেলার এলাইপুর গ্রামের মো. আব্দুর রাজ্জাক বিশ্বাসের ছেলে। কোনাপাড়া এলাকায় ভাড়া থাকতেন তিনি। অপরদিকে মো. মহিদুল সিরাজগঞ্জের শাহাজাদপুর থানার পূর্ব ভিরাখোলা গ্রামের মো. সাবেদ আলী খানের ছেলে।

শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন ও প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটের আবাসিক চিকিৎসক ডা. তরিকুল ইসলাম জানান, ভোর পাঁচটার দিকে আরিফুল ইসলাম মারা যান। তার শরীরের ৭০ শতাংশ দগ্ধ হয়েছিল। অপরদিকে মহিদুল সকাল পৌনে ৭টার দিকে মারা যান। তার শরীরের ৯৫ শতাংশ দগ্ধ হয়েছিল।

ডা. তরিকুল ইসলাম আরও জানান, এই ঘটনায় গত শনিবার সকালে মনসুর আলী, শুক্রবার সকালে সোলাইমান মোল্লা এবং সন্ধ্যার দিকে শিশু তায়েবা মারা যায়। অন্যদের অবস্থা আশঙ্কাজনক।

আরিফুল ইসলাম রাজশাহীর বাঘা উপজেলার এলাইপুর গ্রামের মো. আব্দুর রাজ্জাক বিশ্বাসের ছেলে। কালিয়াকৈরের কোনাপাড়া এলাকায় ভাড়া থাকতেন তিনি। অপরদিকে মো. মহিদুল সিরাজগঞ্জের শাহাজাদপুর থানার পূর্ব ভিরাখোলা গ্রামের মো. সাবেদ আলী খানের ছেলে।

এম.নাসির/১৭