ঢাকা ০৬:৩৩ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৫ জুলাই ২০২৪

জাবির সহকারী প্রক্টর দ্বীন ইসলাম রিমান্ড শেষে কারাগারে

নিজস্ব প্রতিবেদক
  • আপডেট সময় : ০৪:৩১:১০ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৯ মার্চ ২০২৪ ১১৬ বার পড়া হয়েছে

জাবির সহকারী প্রক্টর দ্বীন ইসলাম রিমান্ড শেষে কারাগারে

নিউজ ফর জাস্টিস অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

The Court: জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের (জবি) ছাত্রী ফাইরুজ অবন্তিকাকে বিশ্ববিদ্যালয়ের সহকারী প্রক্টর দ্বীন ইসলামের আত্মহত্যায় প্ররোচনার মামলায় একদিনের রিমান্ড শেষে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

আজ মঙ্গলবার (১৯ মার্চ) বিকেলে রিমান্ড শেষে তাকে কারাগারে পাঠানো হয়। কোতোয়ালি মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ফিরোজ হোসেন বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

ওসি জানান, একদিনের রিমান্ড শেষে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের সহকারী প্রক্টর দ্বীন ইসলামকে আদালতে হাজির করা হলে আদালত তাকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন। দ্বীন ইসলাম রিমান্ডে কিছু তথ্য দিয়েছেন, সেগুলো যাচাই-বাছাই করা হবে। প্রয়োজনে আরও রিমান্ড চাওয়া হতে পারে।

প্রসঙ্গত, ফেসবুকে সহকারী প্রক্টর দ্বীন ইসলাম ও আম্মান সিদ্দিকী নামে এক সহপাঠীকে দোষারোপ করে শুক্রবার (১৫ মার্চ) রাতে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের (জবি) শিক্ষার্থী ফাইরুজ অবন্তিকাকে ফাঁসি দেওয়া হয়। স্বজনরা তাকে উদ্ধার করে কুমিল্লা জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। শনিবার ময়নাতদন্ত শেষে বিকাল ৩টায় প্রথম এবং সাড়ে ৪টায় দ্বিতীয় জানাজা অনুষ্ঠিত হয়। পরে অবন্তিকাকে বাবার কবরের পাশে দাফন করা হয়।

নিহত অবন্তিকা কুমিল্লা নগরীর শিমগাছা এলাকার মৃত জামাল উদ্দিনের মেয়ে। তার বাবা জামাল উদ্দিন কুমিল্লা সরকারি কলেজের পদার্থবিজ্ঞানের অধ্যাপক ছিলেন। তার মা তাহমিনা শবনম কুমিল্লা পুলিশ লাইন্স উচ্চ বিদ্যালয়ের খণ্ডকালীন শিক্ষক ছিলেন। তার বাবা অধ্যাপক জামাল উদ্দিন ১২ এপ্রিল ২০২৩ সালে মারা যান। অবন্তিকার একটি মাত্র ছোট ভাই রয়েছে। তার নাম জারিফ জাওয়াদ অপূর্ব। অপূর্ব এ বছর এসএসসি পরীক্ষা দিয়েছে।

অবন্তিকার আত্মহত্যার পর তার মা তাহমিনা শবনম বাদী হয়ে কুমিল্লা কোতোয়ালি মডেল থানায় সহকারী প্রক্টর দ্বীন ইসলাম ও ছাত্রী আম্মান সিদ্দিকীর বিরুদ্ধে আত্মহত্যায় প্ররোচনার অভিযোগ এনে মামলা করেন। গত শুক্রবার সন্ধ্যায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য দুই আসামিকে গ্রেপ্তার করে ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ। পরে দুজনকে কুমিল্লা কোতয়ালী মডেল থানায় হস্তান্তর করা হয়। সোমবার (১৮ মার্চ) তাদের আদালতে হাজির করা হলে আসামি সহপাঠী আম্মান সিদ্দিকীকে দুই দিন এবং সহকারী প্রক্টর দ্বীন ইসলামকে একদিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন আদালত।

আরকে/১৯

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

জাবির সহকারী প্রক্টর দ্বীন ইসলাম রিমান্ড শেষে কারাগারে

আপডেট সময় : ০৪:৩১:১০ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৯ মার্চ ২০২৪

The Court: জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের (জবি) ছাত্রী ফাইরুজ অবন্তিকাকে বিশ্ববিদ্যালয়ের সহকারী প্রক্টর দ্বীন ইসলামের আত্মহত্যায় প্ররোচনার মামলায় একদিনের রিমান্ড শেষে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

আজ মঙ্গলবার (১৯ মার্চ) বিকেলে রিমান্ড শেষে তাকে কারাগারে পাঠানো হয়। কোতোয়ালি মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ফিরোজ হোসেন বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

ওসি জানান, একদিনের রিমান্ড শেষে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের সহকারী প্রক্টর দ্বীন ইসলামকে আদালতে হাজির করা হলে আদালত তাকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন। দ্বীন ইসলাম রিমান্ডে কিছু তথ্য দিয়েছেন, সেগুলো যাচাই-বাছাই করা হবে। প্রয়োজনে আরও রিমান্ড চাওয়া হতে পারে।

প্রসঙ্গত, ফেসবুকে সহকারী প্রক্টর দ্বীন ইসলাম ও আম্মান সিদ্দিকী নামে এক সহপাঠীকে দোষারোপ করে শুক্রবার (১৫ মার্চ) রাতে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের (জবি) শিক্ষার্থী ফাইরুজ অবন্তিকাকে ফাঁসি দেওয়া হয়। স্বজনরা তাকে উদ্ধার করে কুমিল্লা জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। শনিবার ময়নাতদন্ত শেষে বিকাল ৩টায় প্রথম এবং সাড়ে ৪টায় দ্বিতীয় জানাজা অনুষ্ঠিত হয়। পরে অবন্তিকাকে বাবার কবরের পাশে দাফন করা হয়।

নিহত অবন্তিকা কুমিল্লা নগরীর শিমগাছা এলাকার মৃত জামাল উদ্দিনের মেয়ে। তার বাবা জামাল উদ্দিন কুমিল্লা সরকারি কলেজের পদার্থবিজ্ঞানের অধ্যাপক ছিলেন। তার মা তাহমিনা শবনম কুমিল্লা পুলিশ লাইন্স উচ্চ বিদ্যালয়ের খণ্ডকালীন শিক্ষক ছিলেন। তার বাবা অধ্যাপক জামাল উদ্দিন ১২ এপ্রিল ২০২৩ সালে মারা যান। অবন্তিকার একটি মাত্র ছোট ভাই রয়েছে। তার নাম জারিফ জাওয়াদ অপূর্ব। অপূর্ব এ বছর এসএসসি পরীক্ষা দিয়েছে।

অবন্তিকার আত্মহত্যার পর তার মা তাহমিনা শবনম বাদী হয়ে কুমিল্লা কোতোয়ালি মডেল থানায় সহকারী প্রক্টর দ্বীন ইসলাম ও ছাত্রী আম্মান সিদ্দিকীর বিরুদ্ধে আত্মহত্যায় প্ররোচনার অভিযোগ এনে মামলা করেন। গত শুক্রবার সন্ধ্যায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য দুই আসামিকে গ্রেপ্তার করে ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ। পরে দুজনকে কুমিল্লা কোতয়ালী মডেল থানায় হস্তান্তর করা হয়। সোমবার (১৮ মার্চ) তাদের আদালতে হাজির করা হলে আসামি সহপাঠী আম্মান সিদ্দিকীকে দুই দিন এবং সহকারী প্রক্টর দ্বীন ইসলামকে একদিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন আদালত।

আরকে/১৯