ঢাকা ০২:১০ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৩ জুন ২০২৪

চুলের যত্নে ডাবের পানির ব্যবহার

নিজস্ব ডেস্ক
  • আপডেট সময় : ০৩:৩৩:৪১ অপরাহ্ন, রবিবার, ১৭ মার্চ ২০২৪ ১০৪ বার পড়া হয়েছে

সংগৃহীত

নিউজ ফর জাস্টিস অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

Hair care :

একাধিক গবেষণায় দেখা গেছে শুধু গরমকাল নয় সারা বছর যদি নিয়ম করে ডাবের পানি খাওয়া যায় তাহলে একাধিক রোগ শরীরের ধারে কাছেও ঘেঁষতে পারে না। শুধু তাই নয় ডাবের পানি উপস্থিত অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট, অ্যামাইনো অ্যাসিড, ভিটামিন বি কমপ্লেক্স, ভিটামিন সি, আয়রন, ক্যালসিয়াম, ম্যাগনেসিয়াম, মেঙ্গানিজ এবং জিঙ্ক নানাভাবে শরীরে গঠনে বিশেষ ভূমিকা পালন করে থাকে। এসব উপাদানই আমাদের বেঁচে থাকার জন্য প্রয়োজন পরে।

বিভিন্ন রকম ভিটামিন এবং খনিজে ভরপুর এই পানীয় শরীরের জন্য উপকারী তা সকলেই জানেন। বসন্তের দাগ-ছোপ নির্মূল করতে অনেকে মুখে ডাবের পানি দেয়ার পরামর্শ দিয়ে থাকেন। তবে চুলের যত্নেও ডাবের পানির ব্যবহার রয়েছে তা অনেকেইরই হয়তো অজানা।

১) মাথার ত্বকের আর্দ্রতা বজায় রাখতে সাহায্য করে ডাবের পানি। এতে রয়েছে নানা ধরনের ভিটামিন এবং খনিজ। নিয়মিত ডাবের পানি দিয়ে চুল ধুলে মাথার ত্বকে কোনো রকম ব্যাক্টেরিয়া বাসা বাঁধতে পারে না।

২) ডাবের পানির মধ্যে এমন কিছু উপাদান রয়েছে যা চুলের স্থিতিস্থাপকতা বাড়িয়ে তুলতে সাহায্য করে। ফলে মাঝখান থেকে চুল সহজে ভেঙে পড়ে না। ডগা ফাটার সমস্যা থাকলে তা-ও প্রতিরোধ করে।

৩) ডাবের পানিতে রয়েছে পটাশিয়াম এবং ম্যাগনেশিয়ামের মতো কিছু খনিজ। যা চুল লম্বা করতে সাহায্য করে। চুলের ফলিকলগুলি মজবুত করতেও এই পানীয়ের ভূমিকা রয়েছে।

৪) রুক্ষ চুলে সহজেই জট পড়ে যায়। চিরুনি দিয়ে আঁচড়াতে গেলে ঝরে পড়া চুলের পরিমাণ তাই বাড়তে থাকে। রাসায়নিক দেয়া কন্ডিশনার কিংবা সিরামের বদলে ডাবের পানি ব্যবহার করলে এই ধরনের সমস্যা থেকে সহজেই রেহাই মেলে।

৫) মাথার ত্বকের স্বাভাবিক পিএইচের সমতা বজায় রাখে ডাবের পানি। স্বাস্থ্যোজ্জ্বল চুল পেতে গেলে মাথার ত্বকের পিএইচের ভারসাম্য বজায় রাখা জরুরি।

/শিল্পী/

 

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

চুলের যত্নে ডাবের পানির ব্যবহার

আপডেট সময় : ০৩:৩৩:৪১ অপরাহ্ন, রবিবার, ১৭ মার্চ ২০২৪

Hair care :

একাধিক গবেষণায় দেখা গেছে শুধু গরমকাল নয় সারা বছর যদি নিয়ম করে ডাবের পানি খাওয়া যায় তাহলে একাধিক রোগ শরীরের ধারে কাছেও ঘেঁষতে পারে না। শুধু তাই নয় ডাবের পানি উপস্থিত অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট, অ্যামাইনো অ্যাসিড, ভিটামিন বি কমপ্লেক্স, ভিটামিন সি, আয়রন, ক্যালসিয়াম, ম্যাগনেসিয়াম, মেঙ্গানিজ এবং জিঙ্ক নানাভাবে শরীরে গঠনে বিশেষ ভূমিকা পালন করে থাকে। এসব উপাদানই আমাদের বেঁচে থাকার জন্য প্রয়োজন পরে।

বিভিন্ন রকম ভিটামিন এবং খনিজে ভরপুর এই পানীয় শরীরের জন্য উপকারী তা সকলেই জানেন। বসন্তের দাগ-ছোপ নির্মূল করতে অনেকে মুখে ডাবের পানি দেয়ার পরামর্শ দিয়ে থাকেন। তবে চুলের যত্নেও ডাবের পানির ব্যবহার রয়েছে তা অনেকেইরই হয়তো অজানা।

১) মাথার ত্বকের আর্দ্রতা বজায় রাখতে সাহায্য করে ডাবের পানি। এতে রয়েছে নানা ধরনের ভিটামিন এবং খনিজ। নিয়মিত ডাবের পানি দিয়ে চুল ধুলে মাথার ত্বকে কোনো রকম ব্যাক্টেরিয়া বাসা বাঁধতে পারে না।

২) ডাবের পানির মধ্যে এমন কিছু উপাদান রয়েছে যা চুলের স্থিতিস্থাপকতা বাড়িয়ে তুলতে সাহায্য করে। ফলে মাঝখান থেকে চুল সহজে ভেঙে পড়ে না। ডগা ফাটার সমস্যা থাকলে তা-ও প্রতিরোধ করে।

৩) ডাবের পানিতে রয়েছে পটাশিয়াম এবং ম্যাগনেশিয়ামের মতো কিছু খনিজ। যা চুল লম্বা করতে সাহায্য করে। চুলের ফলিকলগুলি মজবুত করতেও এই পানীয়ের ভূমিকা রয়েছে।

৪) রুক্ষ চুলে সহজেই জট পড়ে যায়। চিরুনি দিয়ে আঁচড়াতে গেলে ঝরে পড়া চুলের পরিমাণ তাই বাড়তে থাকে। রাসায়নিক দেয়া কন্ডিশনার কিংবা সিরামের বদলে ডাবের পানি ব্যবহার করলে এই ধরনের সমস্যা থেকে সহজেই রেহাই মেলে।

৫) মাথার ত্বকের স্বাভাবিক পিএইচের সমতা বজায় রাখে ডাবের পানি। স্বাস্থ্যোজ্জ্বল চুল পেতে গেলে মাথার ত্বকের পিএইচের ভারসাম্য বজায় রাখা জরুরি।

/শিল্পী/