ঢাকা ১০:১২ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৮ মে ২০২৪

বাবার কবরের পাশে চিরনিদ্রায় সাদি মহম্মদ

বিনোদন ডেস্ক
  • আপডেট সময় : ০৯:০২:৪৬ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৪ মার্চ ২০২৪ ৯১ বার পড়া হয়েছে

সংগৃহীত

নিউজ ফর জাস্টিস অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

Singer SAdi Md :

কিংবদন্তি রবীন্দ্র সংগীতশিল্পী সাদি মহম্মদের দাফন সম্পন্ন হয়েছে। বৃহস্পতিবার (১৪ মার্চ) জোহরের নামাজের পর জানাজা শেষে রাজধানীর মোহাম্মদপুর জামে মসজিদ কবরস্থানে তাকে দাফন করা হয়। এ সময় অনেকে কান্নায় ভেঙে পড়েন।

বুধবার সন্ধ্যায় মোহাম্মদপুর তাজমহল রোডে নিজের বাসার একটি কক্ষ থেকে সাদি মহম্মদের ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার করা হয়। তার বয়স হয়েছিল ৬৯ বছর।

গত বছরের ৮ জুলাই সাদি মহম্মদের মা জেবুন্নেছা সলিমউল্লাহ বার্ধক্যজনিত রোগে মারা যান। মা মারা যাওয়ার পর থেকে বিষণ্নতায় ভুগছিলেন শিল্পী সাদি মহম্মদ। সেই বিষণ্নতা থেকে তিনি আত্মহত্যা করে থাকতে পারেন বলে ধারণা করা হচ্ছে।

সাদি মহম্মদের ব্যক্তিগত সহকারি সোহেল মাহমুদ জানান, বুধবার সন্ধ্যায় বেগুনি ও মুড়ি দিয়ে ইফতারি শেষে নিজ রুমে যান শিল্পী। বেশ কিছুক্ষণ রেয়াজ করেন তানপুরা দিয়ে। এরপর অনেকসময় চুপচাপ থাকায় রুমে ঢুকতে গিয়ে দেখেন দরজা বন্ধ। ডাকাডাকিতে সাড়া মিলছিলো না। পরে দরজা ভেঙে ঢুকে পরিবারের সদস্যরা দেখেন ঝুলন্ত অবস্থায় শিল্পীর নিথর দেহ।

শহীদ সলিম উল্লাহর ছেলে রবীন্দ্রসংগীত শিল্পী সাদি মহম্মদ এবং নৃত্যশিল্পী শিবলী মহম্মদ বাংলাদেশে সংস্কৃতি অঙ্গনে খুবই চেনা মুখ। বিশ্বভারতী থেকে রবীন্দ্র সংগীতে স্নাতক ও স্নাতকোত্তর করা সাদি মহম্মদ একাধারে শিল্পী, শিক্ষক ও সুরকার ছিলেন। ২০০৭ সালে ‘আমাকে খুঁজে পাবে ভোরের শিশিরে’ অ্যালবামের মাধ্যমে তিনি সুরকার হিসেবে আত্মপ্রকাশ করেন।

২০০৯ সালে তার ‘শ্রাবণ আকাশে’ও ২০১২ সালে তার ‘সার্থক জনম আমার’অ্যালবাম প্রকাশিত হয়। অসংখ্য সিনেমা ও নাটকে প্লেব্যাক করেছেন সাদি। মৃত্যুর আগ পর্যন্ত তিনি ছিলেন সাংস্কৃতিক সংগঠন রবিরাগের পরিচালক।

২০১৫ সালে বাংলা একাডেমি তাকে রবীন্দ্র পুরস্কার দেয়।

/শিল্পী/

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

ট্যাগস :

বাবার কবরের পাশে চিরনিদ্রায় সাদি মহম্মদ

আপডেট সময় : ০৯:০২:৪৬ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৪ মার্চ ২০২৪

Singer SAdi Md :

কিংবদন্তি রবীন্দ্র সংগীতশিল্পী সাদি মহম্মদের দাফন সম্পন্ন হয়েছে। বৃহস্পতিবার (১৪ মার্চ) জোহরের নামাজের পর জানাজা শেষে রাজধানীর মোহাম্মদপুর জামে মসজিদ কবরস্থানে তাকে দাফন করা হয়। এ সময় অনেকে কান্নায় ভেঙে পড়েন।

বুধবার সন্ধ্যায় মোহাম্মদপুর তাজমহল রোডে নিজের বাসার একটি কক্ষ থেকে সাদি মহম্মদের ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার করা হয়। তার বয়স হয়েছিল ৬৯ বছর।

গত বছরের ৮ জুলাই সাদি মহম্মদের মা জেবুন্নেছা সলিমউল্লাহ বার্ধক্যজনিত রোগে মারা যান। মা মারা যাওয়ার পর থেকে বিষণ্নতায় ভুগছিলেন শিল্পী সাদি মহম্মদ। সেই বিষণ্নতা থেকে তিনি আত্মহত্যা করে থাকতে পারেন বলে ধারণা করা হচ্ছে।

সাদি মহম্মদের ব্যক্তিগত সহকারি সোহেল মাহমুদ জানান, বুধবার সন্ধ্যায় বেগুনি ও মুড়ি দিয়ে ইফতারি শেষে নিজ রুমে যান শিল্পী। বেশ কিছুক্ষণ রেয়াজ করেন তানপুরা দিয়ে। এরপর অনেকসময় চুপচাপ থাকায় রুমে ঢুকতে গিয়ে দেখেন দরজা বন্ধ। ডাকাডাকিতে সাড়া মিলছিলো না। পরে দরজা ভেঙে ঢুকে পরিবারের সদস্যরা দেখেন ঝুলন্ত অবস্থায় শিল্পীর নিথর দেহ।

শহীদ সলিম উল্লাহর ছেলে রবীন্দ্রসংগীত শিল্পী সাদি মহম্মদ এবং নৃত্যশিল্পী শিবলী মহম্মদ বাংলাদেশে সংস্কৃতি অঙ্গনে খুবই চেনা মুখ। বিশ্বভারতী থেকে রবীন্দ্র সংগীতে স্নাতক ও স্নাতকোত্তর করা সাদি মহম্মদ একাধারে শিল্পী, শিক্ষক ও সুরকার ছিলেন। ২০০৭ সালে ‘আমাকে খুঁজে পাবে ভোরের শিশিরে’ অ্যালবামের মাধ্যমে তিনি সুরকার হিসেবে আত্মপ্রকাশ করেন।

২০০৯ সালে তার ‘শ্রাবণ আকাশে’ও ২০১২ সালে তার ‘সার্থক জনম আমার’অ্যালবাম প্রকাশিত হয়। অসংখ্য সিনেমা ও নাটকে প্লেব্যাক করেছেন সাদি। মৃত্যুর আগ পর্যন্ত তিনি ছিলেন সাংস্কৃতিক সংগঠন রবিরাগের পরিচালক।

২০১৫ সালে বাংলা একাডেমি তাকে রবীন্দ্র পুরস্কার দেয়।

/শিল্পী/