ঢাকা ১০:৪৯ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ১৮ মে ২০২৪

শিল্পনগরীর দূষণ নিয়ন্ত্রণ

কোরবানির পর অবৈধ চামড়া কারখানার ছাড়পত্র বাতিল

নিজস্ব প্রতিবেদক
  • আপডেট সময় : ০৯:২৬:১৭ অপরাহ্ন, বুধবার, ৬ মার্চ ২০২৪ ৮২ বার পড়া হয়েছে

ফাইল ফটো

নিউজ ফর জাস্টিস অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি
Tannery Permit :

শিল্পনগরীর দূষণ নিয়ন্ত্রণে বিশেষ আলোচনা সভায় পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রী সাবের হোসেন চৌধুরী বলেছেন, জনস্বাস্থ্য বিবেচনায় সাভার চামড়া শিল্পনগরীর আর কোনো দূষণই গ্রহণযোগ্য হবে না। এখানকার শিল্পকারখানা গুলোতে ইটিপি চালু করতে টাইমলাইন দিতে হবে। কোরবানির পর আর ছাড় দেওয়া হবে না। অবৈধ কারখানাগুলোর পরিবেশের ছাড়পত্র বাতিল কার্যক্রম শুরু করা হবে।

আজ বুধবার (৬ মার্চ) বিকালে হেমায়েতপুরে অবস্থিত বিসিক চামড়া শিল্পনগরীর দূষণ নিয়ন্ত্রণ বিষয়ে শিল্পনগরীর অডিটোরিয়ামে অনুষ্ঠিত বিশেষ আলোচনা সভায় পরিবেশমন্ত্রী এসব কথা বলেন।

এ সময় পরিবেশমন্ত্রী বলেন, দূষণ নিয়ন্ত্রণে লেদার ওয়ার্কিং গ্রুপের চাহিদা পূরণ না করতে পারলে পণ্য রপ্তানি করা যাবে না।

তিনি বলেন, আমরা বিগত দশ বছরে মাইনাসে আছি। দূষণ রোধে এখন গুরুত্ব দিতে হবে। দূষণের কারণে মানুষের ক্যান্সার হয়। মানুষের মৃত্য কারণ হয়। অক্সিজেন না থাকায় পানি পচে গেছে, এমনকি এখানে ব্যাকটেরিয়াও বেঁচে থাকতে পারে না। কোরবানির পর সম্ভাব্য পরবর্তী পদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে। এ কাজে সকলের সহযোগিতা দরকার।

এম.নাসির/৬

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

শিল্পনগরীর দূষণ নিয়ন্ত্রণ

কোরবানির পর অবৈধ চামড়া কারখানার ছাড়পত্র বাতিল

আপডেট সময় : ০৯:২৬:১৭ অপরাহ্ন, বুধবার, ৬ মার্চ ২০২৪
Tannery Permit :

শিল্পনগরীর দূষণ নিয়ন্ত্রণে বিশেষ আলোচনা সভায় পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রী সাবের হোসেন চৌধুরী বলেছেন, জনস্বাস্থ্য বিবেচনায় সাভার চামড়া শিল্পনগরীর আর কোনো দূষণই গ্রহণযোগ্য হবে না। এখানকার শিল্পকারখানা গুলোতে ইটিপি চালু করতে টাইমলাইন দিতে হবে। কোরবানির পর আর ছাড় দেওয়া হবে না। অবৈধ কারখানাগুলোর পরিবেশের ছাড়পত্র বাতিল কার্যক্রম শুরু করা হবে।

আজ বুধবার (৬ মার্চ) বিকালে হেমায়েতপুরে অবস্থিত বিসিক চামড়া শিল্পনগরীর দূষণ নিয়ন্ত্রণ বিষয়ে শিল্পনগরীর অডিটোরিয়ামে অনুষ্ঠিত বিশেষ আলোচনা সভায় পরিবেশমন্ত্রী এসব কথা বলেন।

এ সময় পরিবেশমন্ত্রী বলেন, দূষণ নিয়ন্ত্রণে লেদার ওয়ার্কিং গ্রুপের চাহিদা পূরণ না করতে পারলে পণ্য রপ্তানি করা যাবে না।

তিনি বলেন, আমরা বিগত দশ বছরে মাইনাসে আছি। দূষণ রোধে এখন গুরুত্ব দিতে হবে। দূষণের কারণে মানুষের ক্যান্সার হয়। মানুষের মৃত্য কারণ হয়। অক্সিজেন না থাকায় পানি পচে গেছে, এমনকি এখানে ব্যাকটেরিয়াও বেঁচে থাকতে পারে না। কোরবানির পর সম্ভাব্য পরবর্তী পদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে। এ কাজে সকলের সহযোগিতা দরকার।

এম.নাসির/৬