ঢাকা ১০:১৯ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৩ জুন ২০২৪

আরিফুলের সেঞ্চুরিতে মোহামেডানের জয়

স্পোর্টস ডেস্ক
  • আপডেট সময় : ০৬:০১:৫৭ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১৫ মার্চ ২০২৪ ১১৬ বার পড়া হয়েছে

আরিফুলের সেঞ্চুরিতে মোহামেডানের জয়

নিউজ ফর জাস্টিস অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

Cricket: ঢাকা প্রিমিয়ার লিগ ক্রিকেটে সবশেষ অনূর্ধ্ব-১৯ দলে খেলা ক্রিকেটাররা আলো ছড়িয়েছেন। সেঞ্চুরি তুলে মোহামেডানকে জিতিয়েছেন আরিফুল ইসলাম।

বল হাতে চার উইকেট নিয়ে গাজী গ্রুপ ক্রিকেটার্সকে জয় এনে দিয়েছেন আরিফুলের সতীর্থ মাহফুজুর রহমান রাব্বি। এই দুই দলের সঙ্গে এদিন জয় পেয়েছে লিজেন্ডস অব রুপগঞ্জ।

ফতুল্লার খান সাহেব ওসমান আলি স্টেডিয়ামে রুপগঞ্জ টাইগার্স ক্রিকেট ক্লাবকে ৮৪ রানে হারিয়েছে মোহামেডান। শুরুতে ব্যাট করতে নেমে ৫ উইকেট হারিয়ে ২৬৬ রানের বেশি করতে পারেনি মোহামেডান। রান তাড়ায় নেমে নির্ধারিত ৫০ ওভার খেলে ৯ উইকেট হারিয়ে ১৮২ রান করে রুপগঞ্জ।

মোহামেডান পায় জোড়া সেঞ্চুরি। ওপেনার ও অধিনায়ক ইমরুল কায়েস ১২৭ বলে ১০৬ রান করে সালমান হোসেনের বলে আউট হয়ে যান। তবে আরেক সেঞ্চুরিয়ান আরিফুল ইসলাম থাকেন অপরাজিত। ৯ চার ৪ ছক্কার ইনিংসে ১০৬ বলে ১০৫ রান করেন তিনি। যদিও এর বাইরে মোহামেডানের আর কোনো ব্যাটারই রান করতে পারেননি। তৃতীয় সর্বোচ্চ ১২ বলে ৮ রান করেন আরিফুল হক। ৯ ওভার ৪ বল হাত ঘুরিয়ে ৭১ রান দিয়ে ২ উইকেট নেন আব্দুল্লাহ আল মামুন।

রান তাড়ায় নেমে রুপগঞ্জের হয়ে সর্বোচ্চ ৭৮ রান করেন মাহফিজুল ইসলাম রবিন। ১১৩ বলে ৫ চার ও ২ ছক্কায় এই রান করেন তিনি। এছাড়া ২৫ রান করে আসে সালমান হোসেন ইমন ও মানিক খানের ব্যাটে। মোহামেডানের হয়ে ১০ ওভারে ৩০ রান দিয়ে ৪ উইকেট নেন আবু হায়দার রনি, তিন উইকেট নেওয়া নাঈম হাসান ১০ ওভারে দেন কেবল ১৮ রান।

এদিকে বিকেএসপির তিন নম্বর মাঠে সিটি ক্লাবকে পাঁচ উইকেটে হারিয়েছে লিজেন্ডস অব রুপগঞ্জ। শুরুতে ব্যাট করে ১৮৭ রানে অলআউট হয়ে যায় সিটি ক্লাব। ওই রান ৩৭ ওভার ১ বলেই টপকে যায় রুপগঞ্জ।

সিটি ক্লাবের হয়ে অনেকটা একাই লড়েন ওপেনার সাদিকুর রহমান। ১১ চারে ১১০ বলে ৯৬ রান করেন তিনি। ৫৬ বলে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ৩৪ রান করেন আশিক উল আলম নাঈম। রুপগঞ্জের হয়ে চারটি করে উইকেট নেন আব্দুল হালিম ও আলাউদ্দিন বাবু। দুই উইকেট পান শুভাগত হোম।

এই রান তাড়া করতে নেমেও পাঁচ উইকেট হারিয়ে ফেলে রুপগঞ্জ। তবে ১০৯ বলে ৯১ রান করে অপরাজিত থেকে দলকে জয়ের বন্দরে পৌঁছে দেন ওপেনার সাদমান ইসলাম। ৪৮ বলে ৩৪ রান করেন চৌধুরী মোহাম্মদ রিজওয়ান।

বিকেএসপির চার নম্বর মাঠে পারটেক্স স্পোর্টিং ক্লাবকে ৫ উইকেটে হারিয়েছে গাজী গ্রুপ ক্রিকেটার্স। শুরুতে ব্যাট করতে নেমে ১৩০ রানে অলআউট হয়ে যান পারটেক্স। পরে ওই রান ৩২ ওভার ১ বল খেলে তাড়া করে গাজী গ্রুপ।

শুরুতে ব্যাট করতে নেমে পারটেক্সের হয়ে সর্বোচ্চ ৪২ বলে ৩২ রান করেন আজমির আহমেদ, নয় নম্বরে নামা রাজিবুল ইসলামও ৫৫ বলে ৩২ রান করেন। ৯ ওভার ৫ বল হাত ঘুরিয়ে ১ মেডেনসহ ২৫ রান দিয়ে চার উইকেট নেন মাহফিজুর রাব্বি। রান তাড়ায় নেমে অধিনায়ক মেহেদী মারুফের ৯৪ বলে অপরাজিত ৫৯ রানের ইনিংসে সহজ জয় পেয়েছে গাজী গ্রুপ।

আরকে/১৫

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

আরিফুলের সেঞ্চুরিতে মোহামেডানের জয়

আপডেট সময় : ০৬:০১:৫৭ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১৫ মার্চ ২০২৪

Cricket: ঢাকা প্রিমিয়ার লিগ ক্রিকেটে সবশেষ অনূর্ধ্ব-১৯ দলে খেলা ক্রিকেটাররা আলো ছড়িয়েছেন। সেঞ্চুরি তুলে মোহামেডানকে জিতিয়েছেন আরিফুল ইসলাম।

বল হাতে চার উইকেট নিয়ে গাজী গ্রুপ ক্রিকেটার্সকে জয় এনে দিয়েছেন আরিফুলের সতীর্থ মাহফুজুর রহমান রাব্বি। এই দুই দলের সঙ্গে এদিন জয় পেয়েছে লিজেন্ডস অব রুপগঞ্জ।

ফতুল্লার খান সাহেব ওসমান আলি স্টেডিয়ামে রুপগঞ্জ টাইগার্স ক্রিকেট ক্লাবকে ৮৪ রানে হারিয়েছে মোহামেডান। শুরুতে ব্যাট করতে নেমে ৫ উইকেট হারিয়ে ২৬৬ রানের বেশি করতে পারেনি মোহামেডান। রান তাড়ায় নেমে নির্ধারিত ৫০ ওভার খেলে ৯ উইকেট হারিয়ে ১৮২ রান করে রুপগঞ্জ।

মোহামেডান পায় জোড়া সেঞ্চুরি। ওপেনার ও অধিনায়ক ইমরুল কায়েস ১২৭ বলে ১০৬ রান করে সালমান হোসেনের বলে আউট হয়ে যান। তবে আরেক সেঞ্চুরিয়ান আরিফুল ইসলাম থাকেন অপরাজিত। ৯ চার ৪ ছক্কার ইনিংসে ১০৬ বলে ১০৫ রান করেন তিনি। যদিও এর বাইরে মোহামেডানের আর কোনো ব্যাটারই রান করতে পারেননি। তৃতীয় সর্বোচ্চ ১২ বলে ৮ রান করেন আরিফুল হক। ৯ ওভার ৪ বল হাত ঘুরিয়ে ৭১ রান দিয়ে ২ উইকেট নেন আব্দুল্লাহ আল মামুন।

রান তাড়ায় নেমে রুপগঞ্জের হয়ে সর্বোচ্চ ৭৮ রান করেন মাহফিজুল ইসলাম রবিন। ১১৩ বলে ৫ চার ও ২ ছক্কায় এই রান করেন তিনি। এছাড়া ২৫ রান করে আসে সালমান হোসেন ইমন ও মানিক খানের ব্যাটে। মোহামেডানের হয়ে ১০ ওভারে ৩০ রান দিয়ে ৪ উইকেট নেন আবু হায়দার রনি, তিন উইকেট নেওয়া নাঈম হাসান ১০ ওভারে দেন কেবল ১৮ রান।

এদিকে বিকেএসপির তিন নম্বর মাঠে সিটি ক্লাবকে পাঁচ উইকেটে হারিয়েছে লিজেন্ডস অব রুপগঞ্জ। শুরুতে ব্যাট করে ১৮৭ রানে অলআউট হয়ে যায় সিটি ক্লাব। ওই রান ৩৭ ওভার ১ বলেই টপকে যায় রুপগঞ্জ।

সিটি ক্লাবের হয়ে অনেকটা একাই লড়েন ওপেনার সাদিকুর রহমান। ১১ চারে ১১০ বলে ৯৬ রান করেন তিনি। ৫৬ বলে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ৩৪ রান করেন আশিক উল আলম নাঈম। রুপগঞ্জের হয়ে চারটি করে উইকেট নেন আব্দুল হালিম ও আলাউদ্দিন বাবু। দুই উইকেট পান শুভাগত হোম।

এই রান তাড়া করতে নেমেও পাঁচ উইকেট হারিয়ে ফেলে রুপগঞ্জ। তবে ১০৯ বলে ৯১ রান করে অপরাজিত থেকে দলকে জয়ের বন্দরে পৌঁছে দেন ওপেনার সাদমান ইসলাম। ৪৮ বলে ৩৪ রান করেন চৌধুরী মোহাম্মদ রিজওয়ান।

বিকেএসপির চার নম্বর মাঠে পারটেক্স স্পোর্টিং ক্লাবকে ৫ উইকেটে হারিয়েছে গাজী গ্রুপ ক্রিকেটার্স। শুরুতে ব্যাট করতে নেমে ১৩০ রানে অলআউট হয়ে যান পারটেক্স। পরে ওই রান ৩২ ওভার ১ বল খেলে তাড়া করে গাজী গ্রুপ।

শুরুতে ব্যাট করতে নেমে পারটেক্সের হয়ে সর্বোচ্চ ৪২ বলে ৩২ রান করেন আজমির আহমেদ, নয় নম্বরে নামা রাজিবুল ইসলামও ৫৫ বলে ৩২ রান করেন। ৯ ওভার ৫ বল হাত ঘুরিয়ে ১ মেডেনসহ ২৫ রান দিয়ে চার উইকেট নেন মাহফিজুর রাব্বি। রান তাড়ায় নেমে অধিনায়ক মেহেদী মারুফের ৯৪ বলে অপরাজিত ৫৯ রানের ইনিংসে সহজ জয় পেয়েছে গাজী গ্রুপ।

আরকে/১৫