ঢাকা ০৭:৩২ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ২১ এপ্রিল ২০২৪

মুহূর্তেই ধসে পড়ল দিল্লীর বহুতল ভবন

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০৭:৪৯:৫৩ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৯ মার্চ ২০২৩ ১১৭ বার পড়া হয়েছে
নিউজ ফর জাস্টিস অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

আন্তর্জাতিক ডেস্ক :

ভারতের নয়াদিল্লিতে মুহূর্তেই মধ্যেই হুড়মুড় করে একটি বহুতল ভবন ধসে পড়লো। বুধবার (৮ মার্চ) রাজধানীর ভজনপুরা এলাকায় এই দুর্ঘটনা ঘটে। এ ঘটনার পর আশপাশের মানুষ আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে।

তবে এ ঘটনায় এখনো পর্যন্ত কেউ হতাহত তথ্য পাওয়া যায়নি। ভবন ধসের কারণ এখনো নিশ্চিত হওয়া যায়নি বলে জানিয়েছে পুলিশ।

পুলিশ বলেছে, এদিন বেলা তিনটা পাঁচ মিনিটে ফায়ার বিভাগ ভবন ধসের খবর পায়। পরে দ্রুত ঘটনাস্থলে পৌঁছায় ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা। উদ্ধার অভিযান চলছে।

উত্তরপূর্ব দিল্লির সাই বাবা মন্দিরের কাছে এ ভবনটির মালিকের নাম আরিফ মালিক বলে জানা গেছে। ২০ বছর আগে তৈরি ভবনটি কিছুদিন আগে পরিত্যক্ত ঘোষণা করা হয়েছিল।

পুলিশ জানিয়েছে, এর আগে গত ১ মার্চ উত্তর দিল্লির রোশনারা রোডে চারতলা একটি ভবনে আগুন ধরে যায়। পরে ভবনটি ধসে পড়ে। তবে এ ঘটনায় কারও প্রাণহানি হয়নি।

এম.নাসির/৯

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

মুহূর্তেই ধসে পড়ল দিল্লীর বহুতল ভবন

আপডেট সময় : ০৭:৪৯:৫৩ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৯ মার্চ ২০২৩

আন্তর্জাতিক ডেস্ক :

ভারতের নয়াদিল্লিতে মুহূর্তেই মধ্যেই হুড়মুড় করে একটি বহুতল ভবন ধসে পড়লো। বুধবার (৮ মার্চ) রাজধানীর ভজনপুরা এলাকায় এই দুর্ঘটনা ঘটে। এ ঘটনার পর আশপাশের মানুষ আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে।

তবে এ ঘটনায় এখনো পর্যন্ত কেউ হতাহত তথ্য পাওয়া যায়নি। ভবন ধসের কারণ এখনো নিশ্চিত হওয়া যায়নি বলে জানিয়েছে পুলিশ।

পুলিশ বলেছে, এদিন বেলা তিনটা পাঁচ মিনিটে ফায়ার বিভাগ ভবন ধসের খবর পায়। পরে দ্রুত ঘটনাস্থলে পৌঁছায় ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা। উদ্ধার অভিযান চলছে।

উত্তরপূর্ব দিল্লির সাই বাবা মন্দিরের কাছে এ ভবনটির মালিকের নাম আরিফ মালিক বলে জানা গেছে। ২০ বছর আগে তৈরি ভবনটি কিছুদিন আগে পরিত্যক্ত ঘোষণা করা হয়েছিল।

পুলিশ জানিয়েছে, এর আগে গত ১ মার্চ উত্তর দিল্লির রোশনারা রোডে চারতলা একটি ভবনে আগুন ধরে যায়। পরে ভবনটি ধসে পড়ে। তবে এ ঘটনায় কারও প্রাণহানি হয়নি।

এম.নাসির/৯