ঢাকা ০৯:২৬ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ১৯ এপ্রিল ২০২৪

ইমরান খানের বক্তব্য সম্প্রচারে নিউজ চ্যানেলের লাইসেন্স স্থগিত

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০৯:১০:৪১ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ৬ মার্চ ২০২৩ ১১৫ বার পড়া হয়েছে
নিউজ ফর জাস্টিস অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

আন্তর্জাতিক ডেস্ক :

ইমরান খানের বক্তব্য সম্প্রচারে নিউজ চ্যানেলের লাইসেন্স স্থগিত করেছে সে দেশের সরকার। সোমবার (৬ মার্চ) পাকিস্তানি সংবাদমাধ্যম দ্য ডন-এর এক প্রতিবেদনে জানা যায়, পাকিস্তানের সাবেক প্রধানমন্ত্রী ও তেহরিক-ই-ইনসাফ চেয়ারম্যান ইমরান খানের বক্তব্য সম্প্রচারের অভিযোগে চ্যানেলটির লাইসেন্স স্থগিত করা হয়।

এর আগে দক্ষিণ এশিয়ার এই দেশটির সকল স্যাটেলাইট টেলিভিশন চ্যানেলে ইমরান খানের বক্তৃতা সম্প্রচার নিষিদ্ধ করে দেশটির মিডিয়া নিয়ন্ত্রক কর্তৃপক্ষ পাকিস্তান ইলেকট্রনিক মিডিয়া রেগুলেটরি অথরিটি (পিইএমআরএ)।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, পিটিআই চেয়ারম্যান ইমরান খানের বক্তৃতা সম্প্রচারের বিষয়ে রোববার রাতে নিষেধাজ্ঞা আরোপের কয়েক ঘণ্টা পরই বিশ্বকাপজয়ী সাবেক এই ক্রিকেট তারকার বক্তৃতার ক্লিপ সম্প্রচারের জন্য এআরওয়াই নিউজের লাইসেন্স স্থগিত করে নিয়ন্ত্রক কর্তৃপক্ষ। পিইএমআরএ’র দাবি, চ্যানেলটি রাত ৯টার বুলেটিনে জামান পার্কে দেওয়া ইমরানের বক্তৃতার ক্লিপ সম্প্রচার করে।

দ্য ডন বলছে, পাকিস্তানের সকল স্যাটেলাইট টিভি চ্যানেলে ইমরান খানের বক্তৃতা এবং প্রেস টক সম্প্রচার ও পুনঃপ্রচারের ওপর এটি তৃতীয় দফায় আরোপিত কোনও নিষেধাজ্ঞা। যদিও এই ধরনের প্রথম নিষেধাজ্ঞাটি ইসলামাবাদ হাইকোর্ট গত বছরের ৬ সেপ্টেম্বর বাতিল করেছিল এবং অন্যটি নিষেধাজ্ঞা দেওয়ার কয়েক ঘণ্টার মধ্যেই সরকারের পক্ষ থেকে প্রত্যাহার করে নেওয়া হয়েছিল।

সংবাদমাধ্যমটি বলছে, সর্বশেষ এই ‘নিষেধাজ্ঞার আদেশে’ পাকিস্তানের সকল লাইসেন্সধারী টিভি চ্যানেলকে তাদের নিজ নিজ চ্যানেলে ইমরান খানের বক্তৃতা/প্রেস টক (রেকর্ড করা বা লাইভ) সম্প্রচার/পুনঃসম্প্রচার করা থেকে বিরত থাকার নির্দেশ দিয়েছে পিইএমআরএ।

আদেশে বলা হয়েছে, ‘নির্দেশনা অমান্য করলে জনস্বার্থে কোনো কারণ দর্শানোর নোটিশ ছাড়াই পিইএমআরএ অধ্যাদেশ ২০০২ এর ধারা ৩০ এর অধীনে লাইসেন্স স্থগিত করবে।’

কর্তৃপক্ষ দাবি করেছে, ইমরান খান ‘রাষ্ট্রীয় প্রতিষ্ঠান ও কর্মকর্তাদের বিরুদ্ধে তার উস্কানিমূলক বক্তব্যের মাধ্যমে ভিত্তিহীন অভিযোগ এবং ঘৃণামূলক বক্তব্য ছড়াচ্ছেন যা আইনশৃঙ্খলা রক্ষার জন্য ক্ষতিকর এবং জনসাধারণের শান্তি ও শৃঙ্খলা বিঘ্নিত করতে পারে।’

পিটিআই নেতা ফাওয়াদ চৌধুরী পিইএমআরএ’র এই পদক্ষেপকে ‘ইমরানের কণ্ঠস্বরকে স্তব্ধ করার একটি প্রচেষ্টা’ বলে অভিহিত করেছেন এবং এটিকে আইনিভাবে আদালতে চ্যালেঞ্জ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। একইসঙ্গে পাকিস্তানের সকল মিডিয়াকেও একই কাজ করা আহ্বান জানিয়েছেন তিনি।

দ্য ডন বলছে, নিষেধাজ্ঞার আদেশ ‘ইচ্ছাকৃত অমান্য’ করে ইমরান খানের বক্তব্য সম্প্রচার করায় রোববার গভীর রাতে পরবর্তী আদেশ না হওয়া পর্যন্ত এআরওয়াই নিউজ চ্যানেলের লাইসেন্সের ওপর স্থগিতাদেশ জারি করে পাকিস্তানের মিডিয়া নিয়ন্ত্রক কর্তৃপক্ষ।

অবশ্য এআরওয়াই নিউজ চ্যানেল বলছে, নিয়ন্ত্রক কর্তৃপক্ষের আদেশটি বাস্তবায়ন করা সত্ত্বেও চ্যানেলটি পিইএমআরএ’র ক্রোধের সম্মুখীন হয়েছে। কারণ তারা রাত ৯টার শিরোনামে ইমরান খানের বক্তব্য প্রচার করেনি।

চ্যানেলটির দাবি, অন্যান্য টেলিভিশন চ্যানেলগুলোও ইমরান খানের বিবৃতি প্রচার করেছিল। কিন্তু ইলেকট্রনিক মিডিয়া কর্তৃপক্ষ এআরওয়াই নিউজের বিরুদ্ধেই কেবল বৈষম্যমূলক এই ব্যবস্থা গ্রহণ করেছে।

এদিকে ইলেকট্রনিক মিডিয়া কর্তৃপক্ষের এই পদক্ষেপের তীব্র নিন্দা করেছেন পাকিস্তান ফেডারেল ইউনিয়ন অব জার্নালিস্ট (পিএফইউজে) এর অর্থ সম্পাদক সাইদ জাহান আকা লালা আসাদ।

টুইটারে তিনি বলেছেন, ‘পিডিএম সরকারের আরেকটি কুখ্যাত কাজ। ইমরান খানের ভাষণ সম্প্রচারের জন্য পিইএমআরএ পাকিস্তানের বৃহত্তম নিউজ চ্যানেল এআরওয়াই নিউজের লাইসেন্স স্থগিত করেছে। আদালত বারবার পিইএমআরএ’র ফ্যাসিবাদী কার্যকলাপের নিন্দা করলেও দুর্ভাগ্যবশত বাক-স্বাধীনতার বিরুদ্ধে প্রতিহিংসা অব্যাহত রয়েছে।’

উল্লেখ্য, পাকিস্তানের সমস্ত স্যাটেলাইট টিভি চ্যানেলে ইমরান খানের বক্তৃতা সম্প্রচার নিষিদ্ধ করে রোববার নির্দেশনা জারি করে দেশটির মিডিয়া নিয়ন্ত্রক কর্তৃপক্ষ। নির্দেশনা জারির পর রোববার থেকে তা তাৎক্ষণিকভাবে কার্যকর হয়।

দ্য ডন বলছে, পিটিআই চেয়ারম্যান ইমরান খান লাহোরে তার বাসভবন জামান পার্কের বাইরে দলীয় কর্মীদের উদ্দেশে ভাষণ দেওয়ার কয়েক ঘণ্টা পরে এই নিষেধাজ্ঞা দেওয়া হয়। পাকিস্তানের সাবেক এই প্রধানমন্ত্রীর রোববারের ওই ভাষণ দেশটির টিভি চ্যানেলগুলোতেও সম্প্রচার করা হয়।

এদিনের ভাষণে ইমরান বলেন, তিনি কোনও ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠানের সামনে কখনও মাথা নত করেননি এবং আপনাদেরও তা করতে দেবেন না। এসময় তিনি সরকারি দলের নেতাদের বিরুদ্ধেও কটাক্ষ করেন। বিশ্বকাপজয়ী সাবেক এই ক্রিকেট তারকা অভিযোগ করেন, তারা তাদের সম্পদ বিদেশে লুকিয়ে রেখেছেন এবং সাবেক সেনাপ্রধান জেনারেল (অব.) কামার জাভেদ বাজওয়া তাদেরকে আইনি মামলায় সুরক্ষা দিয়েছেন।

এদিকে ইমরানের বক্তব্য প্রচারের ওপর নিষেধাজ্ঞার আদেশের একটি অনুলিপি দেখেছে সংবাদমাধ্যম ডন.কম। সেখানে পাকিস্তানের মিডিয়া নিয়ন্ত্রক কর্তৃপক্ষ পূর্ববর্তী নির্দেশাবলী উল্লেখ করে দেশের সকল লাইসেন্সধারী টিভি চ্যানেলকে ‘রাষ্ট্রীয় প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে কোনও বিষয়বস্তু (কন্টেন্ট) সম্প্রচার করা থেকে বিরত থাকতে’ নির্দেশ দেয়।

এম.নাসির/৬

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

ইমরান খানের বক্তব্য সম্প্রচারে নিউজ চ্যানেলের লাইসেন্স স্থগিত

আপডেট সময় : ০৯:১০:৪১ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ৬ মার্চ ২০২৩

আন্তর্জাতিক ডেস্ক :

ইমরান খানের বক্তব্য সম্প্রচারে নিউজ চ্যানেলের লাইসেন্স স্থগিত করেছে সে দেশের সরকার। সোমবার (৬ মার্চ) পাকিস্তানি সংবাদমাধ্যম দ্য ডন-এর এক প্রতিবেদনে জানা যায়, পাকিস্তানের সাবেক প্রধানমন্ত্রী ও তেহরিক-ই-ইনসাফ চেয়ারম্যান ইমরান খানের বক্তব্য সম্প্রচারের অভিযোগে চ্যানেলটির লাইসেন্স স্থগিত করা হয়।

এর আগে দক্ষিণ এশিয়ার এই দেশটির সকল স্যাটেলাইট টেলিভিশন চ্যানেলে ইমরান খানের বক্তৃতা সম্প্রচার নিষিদ্ধ করে দেশটির মিডিয়া নিয়ন্ত্রক কর্তৃপক্ষ পাকিস্তান ইলেকট্রনিক মিডিয়া রেগুলেটরি অথরিটি (পিইএমআরএ)।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, পিটিআই চেয়ারম্যান ইমরান খানের বক্তৃতা সম্প্রচারের বিষয়ে রোববার রাতে নিষেধাজ্ঞা আরোপের কয়েক ঘণ্টা পরই বিশ্বকাপজয়ী সাবেক এই ক্রিকেট তারকার বক্তৃতার ক্লিপ সম্প্রচারের জন্য এআরওয়াই নিউজের লাইসেন্স স্থগিত করে নিয়ন্ত্রক কর্তৃপক্ষ। পিইএমআরএ’র দাবি, চ্যানেলটি রাত ৯টার বুলেটিনে জামান পার্কে দেওয়া ইমরানের বক্তৃতার ক্লিপ সম্প্রচার করে।

দ্য ডন বলছে, পাকিস্তানের সকল স্যাটেলাইট টিভি চ্যানেলে ইমরান খানের বক্তৃতা এবং প্রেস টক সম্প্রচার ও পুনঃপ্রচারের ওপর এটি তৃতীয় দফায় আরোপিত কোনও নিষেধাজ্ঞা। যদিও এই ধরনের প্রথম নিষেধাজ্ঞাটি ইসলামাবাদ হাইকোর্ট গত বছরের ৬ সেপ্টেম্বর বাতিল করেছিল এবং অন্যটি নিষেধাজ্ঞা দেওয়ার কয়েক ঘণ্টার মধ্যেই সরকারের পক্ষ থেকে প্রত্যাহার করে নেওয়া হয়েছিল।

সংবাদমাধ্যমটি বলছে, সর্বশেষ এই ‘নিষেধাজ্ঞার আদেশে’ পাকিস্তানের সকল লাইসেন্সধারী টিভি চ্যানেলকে তাদের নিজ নিজ চ্যানেলে ইমরান খানের বক্তৃতা/প্রেস টক (রেকর্ড করা বা লাইভ) সম্প্রচার/পুনঃসম্প্রচার করা থেকে বিরত থাকার নির্দেশ দিয়েছে পিইএমআরএ।

আদেশে বলা হয়েছে, ‘নির্দেশনা অমান্য করলে জনস্বার্থে কোনো কারণ দর্শানোর নোটিশ ছাড়াই পিইএমআরএ অধ্যাদেশ ২০০২ এর ধারা ৩০ এর অধীনে লাইসেন্স স্থগিত করবে।’

কর্তৃপক্ষ দাবি করেছে, ইমরান খান ‘রাষ্ট্রীয় প্রতিষ্ঠান ও কর্মকর্তাদের বিরুদ্ধে তার উস্কানিমূলক বক্তব্যের মাধ্যমে ভিত্তিহীন অভিযোগ এবং ঘৃণামূলক বক্তব্য ছড়াচ্ছেন যা আইনশৃঙ্খলা রক্ষার জন্য ক্ষতিকর এবং জনসাধারণের শান্তি ও শৃঙ্খলা বিঘ্নিত করতে পারে।’

পিটিআই নেতা ফাওয়াদ চৌধুরী পিইএমআরএ’র এই পদক্ষেপকে ‘ইমরানের কণ্ঠস্বরকে স্তব্ধ করার একটি প্রচেষ্টা’ বলে অভিহিত করেছেন এবং এটিকে আইনিভাবে আদালতে চ্যালেঞ্জ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। একইসঙ্গে পাকিস্তানের সকল মিডিয়াকেও একই কাজ করা আহ্বান জানিয়েছেন তিনি।

দ্য ডন বলছে, নিষেধাজ্ঞার আদেশ ‘ইচ্ছাকৃত অমান্য’ করে ইমরান খানের বক্তব্য সম্প্রচার করায় রোববার গভীর রাতে পরবর্তী আদেশ না হওয়া পর্যন্ত এআরওয়াই নিউজ চ্যানেলের লাইসেন্সের ওপর স্থগিতাদেশ জারি করে পাকিস্তানের মিডিয়া নিয়ন্ত্রক কর্তৃপক্ষ।

অবশ্য এআরওয়াই নিউজ চ্যানেল বলছে, নিয়ন্ত্রক কর্তৃপক্ষের আদেশটি বাস্তবায়ন করা সত্ত্বেও চ্যানেলটি পিইএমআরএ’র ক্রোধের সম্মুখীন হয়েছে। কারণ তারা রাত ৯টার শিরোনামে ইমরান খানের বক্তব্য প্রচার করেনি।

চ্যানেলটির দাবি, অন্যান্য টেলিভিশন চ্যানেলগুলোও ইমরান খানের বিবৃতি প্রচার করেছিল। কিন্তু ইলেকট্রনিক মিডিয়া কর্তৃপক্ষ এআরওয়াই নিউজের বিরুদ্ধেই কেবল বৈষম্যমূলক এই ব্যবস্থা গ্রহণ করেছে।

এদিকে ইলেকট্রনিক মিডিয়া কর্তৃপক্ষের এই পদক্ষেপের তীব্র নিন্দা করেছেন পাকিস্তান ফেডারেল ইউনিয়ন অব জার্নালিস্ট (পিএফইউজে) এর অর্থ সম্পাদক সাইদ জাহান আকা লালা আসাদ।

টুইটারে তিনি বলেছেন, ‘পিডিএম সরকারের আরেকটি কুখ্যাত কাজ। ইমরান খানের ভাষণ সম্প্রচারের জন্য পিইএমআরএ পাকিস্তানের বৃহত্তম নিউজ চ্যানেল এআরওয়াই নিউজের লাইসেন্স স্থগিত করেছে। আদালত বারবার পিইএমআরএ’র ফ্যাসিবাদী কার্যকলাপের নিন্দা করলেও দুর্ভাগ্যবশত বাক-স্বাধীনতার বিরুদ্ধে প্রতিহিংসা অব্যাহত রয়েছে।’

উল্লেখ্য, পাকিস্তানের সমস্ত স্যাটেলাইট টিভি চ্যানেলে ইমরান খানের বক্তৃতা সম্প্রচার নিষিদ্ধ করে রোববার নির্দেশনা জারি করে দেশটির মিডিয়া নিয়ন্ত্রক কর্তৃপক্ষ। নির্দেশনা জারির পর রোববার থেকে তা তাৎক্ষণিকভাবে কার্যকর হয়।

দ্য ডন বলছে, পিটিআই চেয়ারম্যান ইমরান খান লাহোরে তার বাসভবন জামান পার্কের বাইরে দলীয় কর্মীদের উদ্দেশে ভাষণ দেওয়ার কয়েক ঘণ্টা পরে এই নিষেধাজ্ঞা দেওয়া হয়। পাকিস্তানের সাবেক এই প্রধানমন্ত্রীর রোববারের ওই ভাষণ দেশটির টিভি চ্যানেলগুলোতেও সম্প্রচার করা হয়।

এদিনের ভাষণে ইমরান বলেন, তিনি কোনও ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠানের সামনে কখনও মাথা নত করেননি এবং আপনাদেরও তা করতে দেবেন না। এসময় তিনি সরকারি দলের নেতাদের বিরুদ্ধেও কটাক্ষ করেন। বিশ্বকাপজয়ী সাবেক এই ক্রিকেট তারকা অভিযোগ করেন, তারা তাদের সম্পদ বিদেশে লুকিয়ে রেখেছেন এবং সাবেক সেনাপ্রধান জেনারেল (অব.) কামার জাভেদ বাজওয়া তাদেরকে আইনি মামলায় সুরক্ষা দিয়েছেন।

এদিকে ইমরানের বক্তব্য প্রচারের ওপর নিষেধাজ্ঞার আদেশের একটি অনুলিপি দেখেছে সংবাদমাধ্যম ডন.কম। সেখানে পাকিস্তানের মিডিয়া নিয়ন্ত্রক কর্তৃপক্ষ পূর্ববর্তী নির্দেশাবলী উল্লেখ করে দেশের সকল লাইসেন্সধারী টিভি চ্যানেলকে ‘রাষ্ট্রীয় প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে কোনও বিষয়বস্তু (কন্টেন্ট) সম্প্রচার করা থেকে বিরত থাকতে’ নির্দেশ দেয়।

এম.নাসির/৬