ঢাকা ০৬:০৩ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৫ জুলাই ২০২৪

২ আইনজীবীর আদালত অবমাননাকর মন্তব্য: পিছিয়েছে আদেশ

আদালত প্রতিবেদক
  • আপডেট সময় : ০৫:৪১:২৭ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৯ মার্চ ২০২৪ ১০৬ বার পড়া হয়েছে

- ছবি: সংগৃহিত

নিউজ ফর জাস্টিস অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

2 lawyers:

দেশের বিচার বিভাগের মর্যাদা ক্ষুণ্ন হয়েছে বলে বক্তব্য দেয়ায়, সুপ্রিম কোর্টের ২ আইনজীবীর বিষয়ে শুনানি ও আদেশ পিছিয়ে আগামী ২১ এপ্রিল ধার্য করেছেন আপিল বিভাগ। অভিযুক্ত ২ আইনজীবী হলেন, সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির অ্যাডহক কমিটির আহবায়ক অ্যাডভোকেট মোহাম্মদ মহসিন রশিদ ও সদস্য সচিব শাহ আহমেদ বাদল।

১৮ মার্চ, প্রধান বিচারপতি ওবায়দুল হাসানের নেতৃত্বাধীন আপিল বিভাগের বেঞ্চে এ আদেশ দেন। তবে এর আগে, বিচার বিভাগ নিয়ে অবমাননাকর মন্তব্য করায়, তারা আপিল বিভাগে গত ২৫ ফেব্রয়ারি নিঃশর্ত ক্ষমা প্রার্থনা করেন।

উল্লেখ্য, সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির অ্যাডহক কমিটির আদালত বর্জনের ডাক দিয়ে প্রধান বিচারপতির কাছে দেয়া লিখিত চিঠিতে বিচার বিভাগ, নির্বাচন ও আইনশৃঙ্খলা বাহিনী নিয়ে অবমাননাকর বক্তব্য তুলে ধরার অভিযোগে, তাদেরকে আদালত তলব করেছিলেন।

/আবদুর রহমান খান/

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

২ আইনজীবীর আদালত অবমাননাকর মন্তব্য: পিছিয়েছে আদেশ

আপডেট সময় : ০৫:৪১:২৭ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৯ মার্চ ২০২৪

2 lawyers:

দেশের বিচার বিভাগের মর্যাদা ক্ষুণ্ন হয়েছে বলে বক্তব্য দেয়ায়, সুপ্রিম কোর্টের ২ আইনজীবীর বিষয়ে শুনানি ও আদেশ পিছিয়ে আগামী ২১ এপ্রিল ধার্য করেছেন আপিল বিভাগ। অভিযুক্ত ২ আইনজীবী হলেন, সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির অ্যাডহক কমিটির আহবায়ক অ্যাডভোকেট মোহাম্মদ মহসিন রশিদ ও সদস্য সচিব শাহ আহমেদ বাদল।

১৮ মার্চ, প্রধান বিচারপতি ওবায়দুল হাসানের নেতৃত্বাধীন আপিল বিভাগের বেঞ্চে এ আদেশ দেন। তবে এর আগে, বিচার বিভাগ নিয়ে অবমাননাকর মন্তব্য করায়, তারা আপিল বিভাগে গত ২৫ ফেব্রয়ারি নিঃশর্ত ক্ষমা প্রার্থনা করেন।

উল্লেখ্য, সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির অ্যাডহক কমিটির আদালত বর্জনের ডাক দিয়ে প্রধান বিচারপতির কাছে দেয়া লিখিত চিঠিতে বিচার বিভাগ, নির্বাচন ও আইনশৃঙ্খলা বাহিনী নিয়ে অবমাননাকর বক্তব্য তুলে ধরার অভিযোগে, তাদেরকে আদালত তলব করেছিলেন।

/আবদুর রহমান খান/