ঢাকা ০৭:০৭ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৫ জুলাই ২০২৪

হাইকোর্টে ২ শিশু: আটক মায়ের জামিন শুনানিতে

আদালত প্রতিবেদক   
  • আপডেট সময় : ০৮:১৭:৩৫ অপরাহ্ন, সোমবার, ৪ মার্চ ২০২৪ ১৬৩ বার পড়া হয়েছে

- জামিন শুনানিতে ২ শিশু (ছবি: সংগৃহিত)

নিউজ ফর জাস্টিস অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি
High Court:
গত ২৮ অক্টোবর বিএনপির গণসভায় হামলা ও বাধা দেয়ার অভিযোগে করা মামলায়, ৪ বছর বয়সী নুরজাহান নূরী এবং ৭ বছর বয়সী আকলিমার বাবা হামিদ ভূঁইয়াকে, গ্রেফতারের পরিবর্তে তাদের মা হাফসা আক্তারকে আটক করা হয়েছে। অপরদিকে, হাফসার দায়ের করা জামিন আবেদনের ওপর আদেশ দেয়ার জন্য, মঙ্গলবার (৫ মার্চ) দিন ধার্য করেছেন আদালত।
আদালত পরবর্তী দিনে ওই ঘটনার ভিডিও ফুটেজ তুলে ধরতে, ক্ষমতাসীন দলকে নির্দেশ দেন। সোমবার (৪ মার্চ) বিচারপতি রুহুল কুদ্দুস ও বিচারপতি একেএম রবিউল হাসানের সমন্বয়ে গঠিত বেঞ্চ এ আদেশ দেন। আদালতে জামিন আবেদনকারীর পক্ষে ছিলেন-ব্যারিস্টার কায়সার কামাল, তার সঙ্গে ছিলেন আইনজীবী মো. মাকসুদ উল্লাহ। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন, ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল শাহীন আহমেদ খান।
হাইকোর্ট একজন বিবাদী হিসাবে মহিলার তাৎপর্য সম্পর্কে জিজ্ঞাসা করেছিল, যার রাষ্ট্রপক্ষ সিসিটিভি ফুটেজ এবং ১৬৪ ধারার অধীনে একটি বিবৃতি উদ্ধৃত করে প্রতিক্রিয়া জানায়। আদালত তখন সিসিটিভি ফুটেজ পর্যালোচনা করার অনুরোধ জানায়।
২৯ শে নভেম্বরের খবর, ‘বাবা বাড়ি ফিরলেন, মা কারাগারে ফিরলেন’ শিরোনামের খবরে বলা হয়, গত ২৮ অক্টোবর ঢাকায় বিএনপির গণসমাবেশ বাতিলের পর থেকে গ্রেফতার এড়াচ্ছিলেন বিএনপি কর্মী আবদুল হামিদ ভূঁইয়া। তার স্ত্রী হাফসা আক্তার। একটি নাশকতার মামলায় গ্রেপ্তার, তাদের ৪ বছর বয়সী নুরজাহান এবং ৭ বছর বয়সী আকলিমাকে ব্যথিত রেখে।
ব্যারিস্টার কায়সার কামাল উল্লেখ করেন, ২ বোন তাদের বন্দি মায়ের জামিন শুনানির জন্য তাদের দাদির সঙ্গে হাইকোর্টের অধিবেশনে অংশ নেন। নিম্ন আদালতে প্রত্যাখ্যানের পর হাইকোর্টে জামিনের আবেদন করেন মা হাফসা।
জানা গেছে, হাফসা ২৭ নভেম্বর থেকে কারাগারে ছিলেন এবং ২৫ ফেব্রুয়ারি ঢাকা মহানগর দায়রা জজ আদালতে জামিন পেতে ব্যর্থ হন। জামিন আবেদনের শুনানির সময় তার মেয়েরা তাদের দাদীর সাথে সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতি ভবনে উপস্থিত ছিলেন এবং পরে হাইকোর্টের সম্প্রসারণ ভবনে আদালতের অধিবেশনে অংশ নেন।
/আবদুর রহমান খান/

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

হাইকোর্টে ২ শিশু: আটক মায়ের জামিন শুনানিতে

আপডেট সময় : ০৮:১৭:৩৫ অপরাহ্ন, সোমবার, ৪ মার্চ ২০২৪
High Court:
গত ২৮ অক্টোবর বিএনপির গণসভায় হামলা ও বাধা দেয়ার অভিযোগে করা মামলায়, ৪ বছর বয়সী নুরজাহান নূরী এবং ৭ বছর বয়সী আকলিমার বাবা হামিদ ভূঁইয়াকে, গ্রেফতারের পরিবর্তে তাদের মা হাফসা আক্তারকে আটক করা হয়েছে। অপরদিকে, হাফসার দায়ের করা জামিন আবেদনের ওপর আদেশ দেয়ার জন্য, মঙ্গলবার (৫ মার্চ) দিন ধার্য করেছেন আদালত।
আদালত পরবর্তী দিনে ওই ঘটনার ভিডিও ফুটেজ তুলে ধরতে, ক্ষমতাসীন দলকে নির্দেশ দেন। সোমবার (৪ মার্চ) বিচারপতি রুহুল কুদ্দুস ও বিচারপতি একেএম রবিউল হাসানের সমন্বয়ে গঠিত বেঞ্চ এ আদেশ দেন। আদালতে জামিন আবেদনকারীর পক্ষে ছিলেন-ব্যারিস্টার কায়সার কামাল, তার সঙ্গে ছিলেন আইনজীবী মো. মাকসুদ উল্লাহ। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন, ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল শাহীন আহমেদ খান।
হাইকোর্ট একজন বিবাদী হিসাবে মহিলার তাৎপর্য সম্পর্কে জিজ্ঞাসা করেছিল, যার রাষ্ট্রপক্ষ সিসিটিভি ফুটেজ এবং ১৬৪ ধারার অধীনে একটি বিবৃতি উদ্ধৃত করে প্রতিক্রিয়া জানায়। আদালত তখন সিসিটিভি ফুটেজ পর্যালোচনা করার অনুরোধ জানায়।
২৯ শে নভেম্বরের খবর, ‘বাবা বাড়ি ফিরলেন, মা কারাগারে ফিরলেন’ শিরোনামের খবরে বলা হয়, গত ২৮ অক্টোবর ঢাকায় বিএনপির গণসমাবেশ বাতিলের পর থেকে গ্রেফতার এড়াচ্ছিলেন বিএনপি কর্মী আবদুল হামিদ ভূঁইয়া। তার স্ত্রী হাফসা আক্তার। একটি নাশকতার মামলায় গ্রেপ্তার, তাদের ৪ বছর বয়সী নুরজাহান এবং ৭ বছর বয়সী আকলিমাকে ব্যথিত রেখে।
ব্যারিস্টার কায়সার কামাল উল্লেখ করেন, ২ বোন তাদের বন্দি মায়ের জামিন শুনানির জন্য তাদের দাদির সঙ্গে হাইকোর্টের অধিবেশনে অংশ নেন। নিম্ন আদালতে প্রত্যাখ্যানের পর হাইকোর্টে জামিনের আবেদন করেন মা হাফসা।
জানা গেছে, হাফসা ২৭ নভেম্বর থেকে কারাগারে ছিলেন এবং ২৫ ফেব্রুয়ারি ঢাকা মহানগর দায়রা জজ আদালতে জামিন পেতে ব্যর্থ হন। জামিন আবেদনের শুনানির সময় তার মেয়েরা তাদের দাদীর সাথে সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতি ভবনে উপস্থিত ছিলেন এবং পরে হাইকোর্টের সম্প্রসারণ ভবনে আদালতের অধিবেশনে অংশ নেন।
/আবদুর রহমান খান/