ঢাকা ০৬:০৪ অপরাহ্ন, রবিবার, ১৪ এপ্রিল ২০২৪

ড. ইউনূসকে জিজ্ঞাসাবাদ করতে চায় দুদক

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ১১:৪২:৪৯ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ১৩ মার্চ ২০২৩ ১১৬ বার পড়া হয়েছে
নিউজ ফর জাস্টিস অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

নিজস্ব প্রতিবেদক

গ্রামীণ টেলিকমের দুর্নীতির অভিযোগসংশ্লিষ্ট অনেক তথ্য-উপাত্ত সংগ্রহ করেছে দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) অনুসন্ধান কর্মকর্তারা। কমিশনে প্রতিবেদন দাখিলের আগেই গ্রামীণ টেলিকমের প্রতিষ্ঠাতা ড. মুহাম্মদ ইউনূসকে জিজ্ঞাসাবাদ করতে চায় দুদকের অনুসন্ধান দল।

রোববার (১২ মার্চ) দুদক কমিশনার ড. মোজাম্মেল হক খান সংবাদ মাধ্যমকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে এ তথ্য জানান।

তিনি বলেন, কোনো অনুসন্ধান চলাকালীন সময়ে কাউকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য নোটিশ করা হলে তিনি যদি না আসেন তাতে অনুসন্ধান কাজ বিঘ্নিত হয় না। তবে অনুসন্ধান কর্মকর্তার ওপর নির্ভর করবে ড. মুহাম্মদ ইউনূসকে জিজ্ঞাসাবাদ করার প্রয়োজন আছে কিনা। যদি তিনি প্রয়োজন মনে করেন তবে অবশ্যই জিজ্ঞাসাবাদ করবেন।

দুদক কমিশনার বলেন, গ্রামীণ টেলিকমের দুর্নীতির অভিযোগের ব্যাপারে অনুসন্ধান চলছে। প্রতিষ্ঠানটির সঙ্গে কে জড়িত এ বিষয়টি আমাদের কাছে মুখ্য নয়। আমরা বস্তুনিষ্ঠভাবেই অভিযোগগুলো বিবেচনা করার চেষ্টা করছি। দ্রুতই অনুসন্ধান কাজ শেষ হবে। অনুসন্ধান শেষে যে রিপোর্ট আমরা পাব তা কমিশনে পর্যালোচনা করা হবে। পর্যালোচনায় যদি মনে হয় এ নিয়ে আরও অগ্রসর হওয়া দরকার তাহলে সেটা বিবেচনা করব। আর যদি মনে হয় অনুসন্ধানে পাওয়া তথ্য-উপাত্ত খুব বেশি গুরুত্ব বহন করে না তাহলে এটা এখানেই শেষ হয়ে যেতে পারে।

উল্লেখ্য, গ্রামীণ টেলিকমে কর্মরত শ্রমিক-কর্মচারীদের কল্যাণ তহবিলের অর্থ বিতরণ না করে আত্মসাৎ এবং প্রায় তিন হাজার কোটি টাকা পাচারের অভিযোগ অনুসন্ধান করছে দুদক।

রইস/১৩

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

ড. ইউনূসকে জিজ্ঞাসাবাদ করতে চায় দুদক

আপডেট সময় : ১১:৪২:৪৯ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ১৩ মার্চ ২০২৩

নিজস্ব প্রতিবেদক

গ্রামীণ টেলিকমের দুর্নীতির অভিযোগসংশ্লিষ্ট অনেক তথ্য-উপাত্ত সংগ্রহ করেছে দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) অনুসন্ধান কর্মকর্তারা। কমিশনে প্রতিবেদন দাখিলের আগেই গ্রামীণ টেলিকমের প্রতিষ্ঠাতা ড. মুহাম্মদ ইউনূসকে জিজ্ঞাসাবাদ করতে চায় দুদকের অনুসন্ধান দল।

রোববার (১২ মার্চ) দুদক কমিশনার ড. মোজাম্মেল হক খান সংবাদ মাধ্যমকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে এ তথ্য জানান।

তিনি বলেন, কোনো অনুসন্ধান চলাকালীন সময়ে কাউকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য নোটিশ করা হলে তিনি যদি না আসেন তাতে অনুসন্ধান কাজ বিঘ্নিত হয় না। তবে অনুসন্ধান কর্মকর্তার ওপর নির্ভর করবে ড. মুহাম্মদ ইউনূসকে জিজ্ঞাসাবাদ করার প্রয়োজন আছে কিনা। যদি তিনি প্রয়োজন মনে করেন তবে অবশ্যই জিজ্ঞাসাবাদ করবেন।

দুদক কমিশনার বলেন, গ্রামীণ টেলিকমের দুর্নীতির অভিযোগের ব্যাপারে অনুসন্ধান চলছে। প্রতিষ্ঠানটির সঙ্গে কে জড়িত এ বিষয়টি আমাদের কাছে মুখ্য নয়। আমরা বস্তুনিষ্ঠভাবেই অভিযোগগুলো বিবেচনা করার চেষ্টা করছি। দ্রুতই অনুসন্ধান কাজ শেষ হবে। অনুসন্ধান শেষে যে রিপোর্ট আমরা পাব তা কমিশনে পর্যালোচনা করা হবে। পর্যালোচনায় যদি মনে হয় এ নিয়ে আরও অগ্রসর হওয়া দরকার তাহলে সেটা বিবেচনা করব। আর যদি মনে হয় অনুসন্ধানে পাওয়া তথ্য-উপাত্ত খুব বেশি গুরুত্ব বহন করে না তাহলে এটা এখানেই শেষ হয়ে যেতে পারে।

উল্লেখ্য, গ্রামীণ টেলিকমে কর্মরত শ্রমিক-কর্মচারীদের কল্যাণ তহবিলের অর্থ বিতরণ না করে আত্মসাৎ এবং প্রায় তিন হাজার কোটি টাকা পাচারের অভিযোগ অনুসন্ধান করছে দুদক।

রইস/১৩