ঢাকা ০৭:২৫ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ২১ এপ্রিল ২০২৪

প্রতিটি আদালত চত্বরে হবে ন্যায়কুঞ্জ : প্রধান বিচারপতি

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ১২:০৮:৪৫ অপরাহ্ন, শনিবার, ৪ মার্চ ২০২৩ ১২৩ বার পড়া হয়েছে
নিউজ ফর জাস্টিস অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

চুয়াডাঙ্গা প্রতিনিধি

শনিবার (৪ মার্চ) সকাল ১১টায় চুয়াডাঙ্গা জেলা জজ আদালত চত্বরে বিচারপ্রার্থীদের বিশ্রামাগার ন্যায়কুঞ্জের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপনের পর প্রধান বিচারপতি হাসান ফয়েজ সিদ্দিকী বলেন, প্রতিটি জেলার আদালত চত্বরে হবে ন্যায়কুঞ্জ ।

সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন তিনি।

মামলা দ্রুত নিষ্পত্তি করার ওপর গুরুত্ব দিয়ে প্রধান বিচারপতি বলেন, ‘বিচারকদের পুরনো মামলাগুলো দ্রুত নিষ্পত্তি করার জন্য বলা হয়েছে। এই প্রথম সারাদেশে শতভাগেরও বেশি মামলা নিষ্পত্তি হয়েছে। বিচারকরা অক্লান্ত পরিশ্রম করে যাচ্ছেন। কিন্তু কম লোকবলের কারণে মামলার জট নিষ্পত্তি করা সম্ভব নয়। আরও লোকবল দেওয়ার জন্য আমরা চেষ্টা করবো।’

পরে আদালত চত্বরে বৃক্ষরোপণ করেন প্রধান বিচারপতি। এ সময় জেলা জজ আদালতের সম্মেলন কক্ষে বিচারকদের সঙ্গে মত বিনিময় করেন তিনি। পরে জেলা আইনজীবী সমিতির সদস্যদের সঙ্গে মতবিনিময় করেন প্রধান বিচারপতি।

এ সময় সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগের বিচারপতি আবু জাফর সিদ্দিকী, হাইকোর্ট বিভাগের বিচারপতি কেএম হাফিজুল আলম, চুয়াডাঙ্গা জেলা ও দায়রা জিয়া হায়দার, জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ আমিনুল ইসলাম খান, পুলিশ সুপার আব্দুল্লাহ আল মামুন, চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট লুৎফুর রহমান শিশির, জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি সেলিম উদ্দিন খান, সাধারণ সম্পাদক ফজলে রাব্বি সাগরসহ সংশ্লিষ্টরা উপস্থিত ছিলেন।

এম.নাসির/৪

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

ট্যাগস :

প্রতিটি আদালত চত্বরে হবে ন্যায়কুঞ্জ : প্রধান বিচারপতি

আপডেট সময় : ১২:০৮:৪৫ অপরাহ্ন, শনিবার, ৪ মার্চ ২০২৩

চুয়াডাঙ্গা প্রতিনিধি

শনিবার (৪ মার্চ) সকাল ১১টায় চুয়াডাঙ্গা জেলা জজ আদালত চত্বরে বিচারপ্রার্থীদের বিশ্রামাগার ন্যায়কুঞ্জের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপনের পর প্রধান বিচারপতি হাসান ফয়েজ সিদ্দিকী বলেন, প্রতিটি জেলার আদালত চত্বরে হবে ন্যায়কুঞ্জ ।

সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন তিনি।

মামলা দ্রুত নিষ্পত্তি করার ওপর গুরুত্ব দিয়ে প্রধান বিচারপতি বলেন, ‘বিচারকদের পুরনো মামলাগুলো দ্রুত নিষ্পত্তি করার জন্য বলা হয়েছে। এই প্রথম সারাদেশে শতভাগেরও বেশি মামলা নিষ্পত্তি হয়েছে। বিচারকরা অক্লান্ত পরিশ্রম করে যাচ্ছেন। কিন্তু কম লোকবলের কারণে মামলার জট নিষ্পত্তি করা সম্ভব নয়। আরও লোকবল দেওয়ার জন্য আমরা চেষ্টা করবো।’

পরে আদালত চত্বরে বৃক্ষরোপণ করেন প্রধান বিচারপতি। এ সময় জেলা জজ আদালতের সম্মেলন কক্ষে বিচারকদের সঙ্গে মত বিনিময় করেন তিনি। পরে জেলা আইনজীবী সমিতির সদস্যদের সঙ্গে মতবিনিময় করেন প্রধান বিচারপতি।

এ সময় সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগের বিচারপতি আবু জাফর সিদ্দিকী, হাইকোর্ট বিভাগের বিচারপতি কেএম হাফিজুল আলম, চুয়াডাঙ্গা জেলা ও দায়রা জিয়া হায়দার, জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ আমিনুল ইসলাম খান, পুলিশ সুপার আব্দুল্লাহ আল মামুন, চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট লুৎফুর রহমান শিশির, জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি সেলিম উদ্দিন খান, সাধারণ সম্পাদক ফজলে রাব্বি সাগরসহ সংশ্লিষ্টরা উপস্থিত ছিলেন।

এম.নাসির/৪