ঢাকা ১০:১৯ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ১৮ মে ২০২৪

টেকনাফ-সেন্টমার্টিন রুট

কক্সবাজারে অবৈধ জাহাজ চলাচল বন্ধে রুল

আদালত প্রতিবেদক
  • আপডেট সময় : ০৫:০৪:২৯ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৮ নভেম্বর ২০২৩ ১৬২৯ বার পড়া হয়েছে

কক্সবাজারে অবৈধ জাহাজ চলাচল বন্ধে রুল

নিউজ ফর জাস্টিস অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

দেশের কক্সবাজার জেলার, টেকনাফ থেকে সেন্টমার্টিন রুটে অবৈধভাবে অনুমোদনবিহীন জাহাজ চলাচল বন্ধে কর্তৃপক্ষের নিষ্ক্রিয়তা কেন অবৈধ হবে না, তা জানতে চেয়ে রুল জারি করেছেন হাইকোর্ট। একইসঙ্গে এই রুটে চলাচল করা ফিটনেসবিহীন সব জাহাজ ও নৌ-যানের বিষয়ে অনুসন্ধান করে, আগামী ৩ মাসের মধ্যে প্রতিবেদন দাখিল করতে নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

নৌপথ অধিদপ্তরের মহাপরিচালক, বিআইডব্লিউটিএ-কর্তৃপক্ষসহ সংশ্লিষ্টদের এ আদেশ বাস্তবায়ন করতে বলা হয়েছে। ২৬ নভেম্বর, বিচারপতি মোস্তফা জামান ইসলাম ও বিচারপতি মো. আতাবুল্লাহর হাইকোর্ট বেঞ্চ এ আদেশ দেন। আদালতে রিটের পক্ষে শুনানি করেন অ্যাডভোকেট জোসনা পারভীন।

অপরদিকে গত রোববার কক্সবাজারের টেকনাফ থেকে সেন্টমার্টিন রুটে অবৈধভাবে অনুমোদনবিহীন জাহাজ চলাচল বন্ধে হাইকোর্টে রিট করেন, রামপুরার বাসিন্দা আনোয়ার হোসেন চৌধুরী। টেকনাফ থেকে সেন্টমার্টিন রুটে অবৈধ জাহাজ চলছে শিরোনামে পত্রিকায় প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়। প্রতিবেদন সংযুক্ত করে হাইকোর্টে রিট করা হয়।

প্রকাশিত প্রতিবেদনের প্রথমাংশে বলা হয়, ‘টেকনাফ থেকে সেন্টমার্টিন নৌপথে ঝুঁকি নিয়ে চলছে কয়েকটি জাহাজ। নিয়ম লঙ্ঘন করে এসব জাহাজ চলাচলের কারণে মিয়ানমার সীমানা এলাকায় ডুবে যাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। এতে করে ভরা পর্যটন মৌসুমে বিপুল সংখ্যক পর্যটকের প্রাণহানির আশঙ্কা করা হচ্ছে। অভিযোগ রয়েছে এই রুটে চলাচল করার উপযোগী নয় এমন দুটি জাহাজ গত ২ বছর ধরে চলাচল করছে। এসব জাহাজের বেক্রসিং সনদ বা সমুদ্রসীমা অতিক্রম সনদ নেই।

আরও পড়ুন:

ডিসেম্বরে ঢাকা থেকে কক্সবাজারে ট্রেন চলবে

/আবদুর রহমান খান/

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

টেকনাফ-সেন্টমার্টিন রুট

কক্সবাজারে অবৈধ জাহাজ চলাচল বন্ধে রুল

আপডেট সময় : ০৫:০৪:২৯ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৮ নভেম্বর ২০২৩

দেশের কক্সবাজার জেলার, টেকনাফ থেকে সেন্টমার্টিন রুটে অবৈধভাবে অনুমোদনবিহীন জাহাজ চলাচল বন্ধে কর্তৃপক্ষের নিষ্ক্রিয়তা কেন অবৈধ হবে না, তা জানতে চেয়ে রুল জারি করেছেন হাইকোর্ট। একইসঙ্গে এই রুটে চলাচল করা ফিটনেসবিহীন সব জাহাজ ও নৌ-যানের বিষয়ে অনুসন্ধান করে, আগামী ৩ মাসের মধ্যে প্রতিবেদন দাখিল করতে নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

নৌপথ অধিদপ্তরের মহাপরিচালক, বিআইডব্লিউটিএ-কর্তৃপক্ষসহ সংশ্লিষ্টদের এ আদেশ বাস্তবায়ন করতে বলা হয়েছে। ২৬ নভেম্বর, বিচারপতি মোস্তফা জামান ইসলাম ও বিচারপতি মো. আতাবুল্লাহর হাইকোর্ট বেঞ্চ এ আদেশ দেন। আদালতে রিটের পক্ষে শুনানি করেন অ্যাডভোকেট জোসনা পারভীন।

অপরদিকে গত রোববার কক্সবাজারের টেকনাফ থেকে সেন্টমার্টিন রুটে অবৈধভাবে অনুমোদনবিহীন জাহাজ চলাচল বন্ধে হাইকোর্টে রিট করেন, রামপুরার বাসিন্দা আনোয়ার হোসেন চৌধুরী। টেকনাফ থেকে সেন্টমার্টিন রুটে অবৈধ জাহাজ চলছে শিরোনামে পত্রিকায় প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়। প্রতিবেদন সংযুক্ত করে হাইকোর্টে রিট করা হয়।

প্রকাশিত প্রতিবেদনের প্রথমাংশে বলা হয়, ‘টেকনাফ থেকে সেন্টমার্টিন নৌপথে ঝুঁকি নিয়ে চলছে কয়েকটি জাহাজ। নিয়ম লঙ্ঘন করে এসব জাহাজ চলাচলের কারণে মিয়ানমার সীমানা এলাকায় ডুবে যাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। এতে করে ভরা পর্যটন মৌসুমে বিপুল সংখ্যক পর্যটকের প্রাণহানির আশঙ্কা করা হচ্ছে। অভিযোগ রয়েছে এই রুটে চলাচল করার উপযোগী নয় এমন দুটি জাহাজ গত ২ বছর ধরে চলাচল করছে। এসব জাহাজের বেক্রসিং সনদ বা সমুদ্রসীমা অতিক্রম সনদ নেই।

আরও পড়ুন:

ডিসেম্বরে ঢাকা থেকে কক্সবাজারে ট্রেন চলবে

/আবদুর রহমান খান/