ঢাকা ০৯:৩৯ অপরাহ্ন, সোমবার, ২৭ মে ২০২৪

কারাগারে ডা. ফাতেমা সিদ্দিকা

রাজশাহী প্রতিবেদক
  • আপডেট সময় : ০৫:০৫:৫৯ অপরাহ্ন, শনিবার, ৪ নভেম্বর ২০২৩ ১৫৮৪ বার পড়া হয়েছে

ফাইল ফটো

নিউজ ফর জাস্টিস অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

নাশকতা ও বিস্ফোরক আইনের মামলায় গ্রেপ্তার দেখিয়ে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে গাইনী, স্ত্রী রোগ বিশেষজ্ঞ ডা. ফাতেমাকে। এর আগে তার সঙ্গে জামায়াত-শিবিরের সম্পৃক্ততা ও অর্থের যোগানদাতার অভিযোগে তাকে গেপ্তার করা হয়।

আজ শনিবার (৪ নভেম্বর) দুপুরে নাশকতা ও বিস্ফোরক আইনের মামলায় গ্রেপ্তার দেখিয়ে আদালতের মাধ্যমে তাকে কারাগারে পাঠানো হয়।

গতকাল শুক্রবার সন্ধ্যা ৭টার দিকে রাজশাহী মহানগরীর শাহমখদুম থানার বড়বনগ্রামের বাড়ি থেকে তাকে আটক করে পুলিশ। আটকের পর প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে তিনি জামায়াত-শিবিরকে আর্থিক সহায়তার কথা স্বীকার করেন।

ডা. ফাতেমা সিদ্দিকী রাজশাহী মেডিকেল কলেজের প্রসূতি ও গাইনী বিভাগের অধ্যাপক। মাদারল্যান্ড ইনফার্টিলিটি সেন্টার নামে হাসপাতালেরও মালিক তিনি।

জানা গেছে, বেশ কয়েক বছর আগে সরকারি চাকরি ছেড়ে দেন ডা. ফাতেমা সিদ্দিকী। সেই সময় থেকে তিনি রাজশাহীতে ইসলামী ব্যাংক মেডিকেল কলেজে অধ্যাপনার পাশাপাশি ইসলামি ব্যাংক হাসপাতালে নিয়মিত রোগী দেখতেন।

রাজশাহীর শাহমখদুম থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ইসমাইল হোসেন বলেন, জামায়াতের গোপন বৈঠকের খবর পেয়ে গতকাল সন্ধ্যায় ডা. ফাতেমা সিদ্দিকার বাসায় অভিযান চালানো হয়। তবে সেখানে কাউকে পাওয়া যায়নি। তার বাসা তল্লাশি করে সন্দেহভাজন তেমন কিছু পাওয়া যায়নি।

আরও পড়ুন:

মির্জা আব্বাস ৫ দিনের রিমান্ডে

এম.নাসির/৪

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

কারাগারে ডা. ফাতেমা সিদ্দিকা

আপডেট সময় : ০৫:০৫:৫৯ অপরাহ্ন, শনিবার, ৪ নভেম্বর ২০২৩

নাশকতা ও বিস্ফোরক আইনের মামলায় গ্রেপ্তার দেখিয়ে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে গাইনী, স্ত্রী রোগ বিশেষজ্ঞ ডা. ফাতেমাকে। এর আগে তার সঙ্গে জামায়াত-শিবিরের সম্পৃক্ততা ও অর্থের যোগানদাতার অভিযোগে তাকে গেপ্তার করা হয়।

আজ শনিবার (৪ নভেম্বর) দুপুরে নাশকতা ও বিস্ফোরক আইনের মামলায় গ্রেপ্তার দেখিয়ে আদালতের মাধ্যমে তাকে কারাগারে পাঠানো হয়।

গতকাল শুক্রবার সন্ধ্যা ৭টার দিকে রাজশাহী মহানগরীর শাহমখদুম থানার বড়বনগ্রামের বাড়ি থেকে তাকে আটক করে পুলিশ। আটকের পর প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে তিনি জামায়াত-শিবিরকে আর্থিক সহায়তার কথা স্বীকার করেন।

ডা. ফাতেমা সিদ্দিকী রাজশাহী মেডিকেল কলেজের প্রসূতি ও গাইনী বিভাগের অধ্যাপক। মাদারল্যান্ড ইনফার্টিলিটি সেন্টার নামে হাসপাতালেরও মালিক তিনি।

জানা গেছে, বেশ কয়েক বছর আগে সরকারি চাকরি ছেড়ে দেন ডা. ফাতেমা সিদ্দিকী। সেই সময় থেকে তিনি রাজশাহীতে ইসলামী ব্যাংক মেডিকেল কলেজে অধ্যাপনার পাশাপাশি ইসলামি ব্যাংক হাসপাতালে নিয়মিত রোগী দেখতেন।

রাজশাহীর শাহমখদুম থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ইসমাইল হোসেন বলেন, জামায়াতের গোপন বৈঠকের খবর পেয়ে গতকাল সন্ধ্যায় ডা. ফাতেমা সিদ্দিকার বাসায় অভিযান চালানো হয়। তবে সেখানে কাউকে পাওয়া যায়নি। তার বাসা তল্লাশি করে সন্দেহভাজন তেমন কিছু পাওয়া যায়নি।

আরও পড়ুন:

মির্জা আব্বাস ৫ দিনের রিমান্ডে

এম.নাসির/৪